তামিমকে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের অনুরোধ করবেন সুজন

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে আর না ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তার এই সিদ্ধান্তে যেন ক্রিকেট অঙ্গনে আকাশ ভেঙে পড়েছে। দেশসেরা এই ওপেনারের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনেরও।

এটা তো রকেট সাইন্স না তামিম
টি-টোয়েন্টি দলে আর ফিরতে চান না তামিম। ফাইল ছবি

তবে সুজন জানালেন, তামিমকে তার এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য অনুরোধ করবেন তিনি। রবিবার (২৩ জানুয়ারি) গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এমন কথা জানান সাবেক এই অধিনায়ক।

Advertisment

তামিমকে ফেরানোর জন্য কথা বলবেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সুজন বলেন, ‘অবশ্যই, এটা আমার দায়িত্বই। আমি চাই বাংলাদেশের সেরা দলটা তিন ফরম্যাটে খেলুক। আমি জানি ওরা সবাই খেলার শেষের দিকেই চলে এসেছে। হয়ত আরও ২-৩ বছর খেলবে। একটা জিনিস ফোকাস করতে চাই- আগামী এক বছর বাংলাদেশের অনেক খেলা আছে।’

নিকট ভবিষ্যতের গুরুত্বপূর্ণ সময় বিবেচনায় তামিম সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন কি না তা সময়ই বলে দেবে। তবে যদি ব্যক্তিগত সম্পর্কের রেশ থেকে থাকে তামিমের এমন সিদ্ধান্তে, তাহলে তা সহজেই সমাধান করার আশা ক্রিকেটারদের ‘কাছের মানুষ’ সুজনের।

তিনি বলেন, ‘তামিমের সঙ্গে নিশ্চয়ই কথা হবে। ওদের সাথে খেলা আছে, খেলা শেষে পারলে কথা বলব- ওর সমস্যাটা কোথায়। মনোমালিন্যের ব্যাপার যেটা আছে, যেসব ছোটখাটো সমস্যা আছে, এটাকে গুরুত্ব দিতে হবে। অনেক সময় ছোটোখাটো ব্যাখ্যাটা ভুল হয়। সেটাকে ঠিক করার চেষ্টা করব।’

তামিমের সিদ্ধান্ত বেশ অবাক করেছে সুজনকে। নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ফিরে তামিমের সাথে এই ইস্যুতে আলোচনার কথা ছিল তার। বিস্ময় না লুকিয়ে সুজন বলেন, ‘একটু তো অবাকই আমি! নিউজিল্যান্ড যাওয়ার আগেও আমি তামিমের সঙ্গে কথা বলেছিলাম যে কেন খেলবি না বা কারণ কী। তখন এত কথা হয়নি। আমি বলেছিলাম আমি ফিরি আগে, তারপর কথা বলব। তার সঙ্গে কথাও হয়নি, তার আগেই পাপন ভাই অলরেডি বলে দিয়েছেন, তামিম নাকি পাপন ভাইকে বলেছে আর খেলবে না।’

তবে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য তামিমের ওপর চাপ প্রয়োগ করা হবে না, এ বিষয়টিও নিশ্চিত করেন সুজন। তিনি বলেন, ‘এটা অবশ্যই প্রত্যেকের ব্যক্তিগত ব্যাপার। ওর আমাদের টপ অর্ডার ব্যাটার কেউ রেডি আছে তা না। তার পরও এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। কেউ যদি না চায় তাকে তো চাপ দেয়া যাবে না। আমাদের সামনে এগোতেই হবে। ক্রিকেট তো বসে থাকবে না।’