Scores

তামিমদের কাছে ধরাশায়ী মাশরাফিরা

ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে বাংলাদেশের প্রাথমিক স্কোয়াডের ক্রিকেটারদের নিজেদের মধ্যে খেলা প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে মাশরাফি মুর্তজার বিসিবি সবুজ দলকে ১৩৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে সাকিব আল হাসান-তামিম ইকবালদের বিসিবি লাল দল।

টস হারা সত্ত্বেও প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ পেয়ে প্রথমে ব্যাট করে তামিম ইকবালের ১০৪ রান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ৭৫ বলের দ্রুতগতির ৮৭ রানের সাথে আবুল হাসান রাজুর ৩৫ রানে চড়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩২০ রানের পাহাড়সম পুঁজি দাঁড় করায় বিসিবি লাল দল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৪৩.২ ওভারে সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রান করতে সক্ষম হয় সবুজ দল।

Also Read - সিডনি যাওয়ার আগে নতুন সাফল্যে উৎসাহিত সাকিব

দলের পক্ষে সর্বোচ ৪৪ রান আসে ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মতো ব্যাট করতে নামা মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে। স্কোয়াড অনুযায়ী বিসিবি লাল দলের হয়ে ব্যাট করে শূন্য রানে আউট হয়ে গেলে, পরবর্তীতে সবুজ দলের হয়েও খেলতে নামেন তিনি। এবার অবশ্য রানের দেখা পান তিনি। ৫৬ বল মোকাবেলায় করেন ২ চারের সাহায্যে অপরাজিত ৪৪ রান। এক প্রান্ত আগলে ব্যাট করলেও অন্য প্রান্তের ব্যাটসম্যানরা ক্রিজে থিতু হতে ব্যর্থ হলে ইনিংস আর বড় করা হয়নি মুশফিকের।

মুশফিক ছাড়া সবুজ দলের হয়ে মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাট থেকে ৩২ ও নাসির হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। প্রতিপক্ষ বোলারদের মধ্যে রুবেল হোসেন ও আবু হায়দার রনি উভয় বোলারই নেন তিনটি করে উইকেট। সাফল্য পেতে রনি একটু খরুচে বোলিং (৫১ রান) করলেও মিতব্যয়ী ছিলেন রুবেল হোসেন।

এর আগে ১০ চার ও ২ ছয়ের ১১৯ বল মোকাবেলায় ১০৪ রান করে তামিম ইকবাল স্বেচ্ছায় অবসর নিলে দলের হাল পুরোদমে নিজের কাঁধে নিয়ে খেলতে থাকেন রিয়াদ।  ৪৮তম ওভারে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে করেন ৩ ছয় ও ৫ চারের সাহায্যে ৮৭ রান। দলকে রান পাহাড়ে চড়াতে তামিম-রিয়াদের পাশাপাশি সাকিব ২৪, বিজয় ২১ ও সাব্বির ২০ রান করেন।

সবুজ দলের বোলারদের মধ্যে মাশরাফি মুর্তজা ৮৭ রান নিয়ে উইকেটশূন্য থাকলেও তাসকিন, মুস্তাফিজ ও সাইফউদ্দিন প্রত্যেকেই লাভ করেন দুটি করে উইকেট। এর জন্য তিন তরুণ গতিতারকা রান ব্যয় করেন যথাক্রমে তাসকিন ৬ ওভারে ৪৩, সাইফউদ্দিন ৯ ওভারে ৪৪ ও মুস্তাফিজ ১০ ওভারে ৪৭।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-

বিসিবি লাল দলঃ ৩২০/৬ (৫০ ওভার)
(তামিম ১০৪ (রিটায়ার্ড), বিজয় ২০, সাকিব ২৪, মুশফিক ০, রিয়াদ ৮৭, সাব্বির ২০, রাজু ৩৫, রনি ৪*, সানজামুল ৪*; তাসকিন ৪৩/২, সাইফউদ্দিন ৪৪/২, মুস্তাফিজ ৪৭/২)

বিসিবি সবুজ দলঃ ১৮৩/১০ (৪৩.২ ওভার)
(মিঠুন ৩২, সৌম্য ১৮, লিটন ৭, শান্ত ১৩, নাসির ২৫, মুশফিক ৪৪*, আরিফুল ৯, সাইফউদ্দিন ১৩, মাশরাফি ৭, মিরাজ ৫, অপু ১; রনি ৫১/৩, রুবেল ২১/৩, সানজামুল ২৩/১)

ফলাফলঃ বিসিবি লাল দল ১৩৭ রানে জয়ী।

আরও পড়ুনঃ সিডনি যাওয়ার আগে নতুন সাফল্যে উৎসাহিত সাকিব

Related Articles

মুশফিকের সাথে অস্ট্রেলিয়ার আচরণ মানতে পারছেন না ডমিঙ্গো

ফাঁকা মাঠ তদারকিতে অস্ট্রেলিয়ার ‘৫’ সদস্যের পরিদর্শক দল

‘খারাপ টি-টোয়েন্টি দল’ তকমায় ক্ষেপেছেন ডমিঙ্গো

ওপেনার হিসেবে ডমিঙ্গোর ভাবনায় সাকিব-মিঠুনের নাম

বাংলাদেশের স্পিন বান্ধব উইকেটের ফায়দা লুটতে চান টার্নার