Scores

তামিমদের ‘হারানোর ভয় নেই’ বলেই ভয়ে ছিলেন মুশফিক

টানা তিন পরাজয়ের পর অবশেষে জয়ের দেখা পেয়েছে বেক্সিমকো ঢাকা। যদিও ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ১০৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমেও ঘাম ঝরাতে হয়েছে মুশফিকুর রহিমের দলকে। ৭ উইকেটের জয় এসেছে ১৮.৫ ওভারে।

তামিমদের 'হারানোর ভয় নেই' বলেই ভয়ে ছিলেন মুশফিক



টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৮ রান জড়ো করে তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন ফরচুন বরিশাল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৭ রানেই এক উইকেট হারিয়ে বসে ঢাকা।

Also Read - মাঝপথেই এলপিএল ছেড়ে বাড়ি ফিরলেন আফ্রিদি

নাইম শেখ ২০ বলে ১৩ ও তানজিদ হাসান তামিম ২০ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফিরলে মুশফিকের সাথে ম্যাচ বাঁচানোর দায়িত্ব বর্তায় ইয়াসির আলি রাব্বির উপর। ইয়াসির মারকুটে ব্যাটিং চালিয়ে গেলেও ধীর-স্থির ছিলেন মুশফিক। ইয়াসির ৩০ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন, ৭ উইকেতের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন ৩৪ বলে মাত্র ২৩ রান করা মুশফিকও।

ম্যাচ শেষে মুশফিক জানান তার ধীর ইনিংসের কারণ। দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে দল চাপে পড়ে যাওয়ায় মুশফিক মূলত কোনো ঝুঁকি নিতে চাননি। ম্যাচ শেষ করে আসার লক্ষ্য থেকেই ব্যাট করেছেন ওয়ানডে মেজাজে।

মুশফিক বলেন, ‘ছোট লক্ষ্য ছিল, কিন্তু সহজ নয়। প্রতিপক্ষের যখন হারানোর কিছু থাকে না, তখন তারা ২০ ওভার জুড়েই সবটুকু দিয়ে চেষ্টা করে। শুরুতে দ্রুত কিছু উইকেট হারানোর পর আমি আর ঝুঁকি নিতে পারছিলাম না।’

‘আমি ভাবছিলাম আমাকে পুরো ইনিংস জুড়ে থাকতে হবে আর অপর প্রান্তে কেউ একজন বা দুইজন ২০-৩০ রান করুক। আরও কিছু ওভার হাতে রেখে জিততে পারলে ভালো হত, কারণ আমাদের রান রেট ভালো নয়। তবে দিনশেষে জয় তো জয়ই।’– বলেন মুশফিক।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 


Related Articles

ব্যর্থতার স্বীকারোক্তি; ফিনিশার হওয়ায় নজর আফিফের

তরুণদের নিয়ে তামিমের কণ্ঠে কঠোরতার সুর

ধীরগতিতে ব্যাট করার কারণ জানালেন তামিম

আফিফ ঝড়ের পরও বরিশালকে বিদায় করে দিল ঢাকা

তাসকিন-মিরাজদের আঁটসাঁট বোলিংয়ের পরও ঢাকার লড়াকু সংগ্রহ