তামিমের অর্ধশতক ও পেরেরার ঝড়ে বড় সংগ্রহ ঢাকার

0
725

বিপিএলের সপ্তম আসরে তারকা সমৃদ্ধ বেশ শক্ত দল গড়েছে ঢাকা প্লাটুন। তবে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হারতে হয়েছে বড় ব্যবধানে। আজ টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ ও নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আবার মাঠে নেমেছে ঢাকা। যেখানে তামিম ইকবাল ও থিসারা পেরেরার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে বড় রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।

Advertisment

গত দিনের মত এই ম্যাচেও টস ভাগ্য কথা বলেনি ঢাকার হয়ে। টসে হেরে ব্যাট করতে নামে প্লাটুন। দলের হয়ে এনামুল হক বিজয়কে সাথে নিয়ে ইনিংস শুরু করতে আসেন তামিম। তবে হতাশ করেন বিজয়, ইনিংসের প্রথম বলে উইকেট উপহার দেন মুজিব উর রহমানকে। শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে বেশ সময় লাগে ঢাকার। ধীরগতির ব্যাটিং করতে থাকেন তামিম এবং মেহেদী হাসান।

পরে মেহেদী ১৭ বল থেকে ১২ রান করে আউট হলে নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে আসেন লরি ইভান্স। দেখেশুনে কুমিল্লার বোলারদের মোকাবেলা করতে থাকেন দুজন। ৫৬ বলে দলীয় অর্ধশত রান পার করা ঢাকা পরে খোলস ছেড়ে বের হয় ইনিংসের দশম ওভারে। ১০ থেকে ১৩ ওভারে দলীয় স্কোরে যোগ করে ৪২ রান। এরই এক ফাঁকে নিজের ফিফটি তুলে নেন তামিম। তাতে অবশ্য বল খরচ করেন গুনে গুনে ৪০টি।

দলীয় ১০১ রানের মাথায় শানাকার বলে আউট হন ইভান্স। এর আগে তামিমের সাথে গড়ে যান ৭৫ রানের পার্টনারশিপ। এরপর হাত খুলে খেলতে শুরু করেন তামিম, সাথে যোগ দেন পেরেরা। চার-ছক্কার ফুলঝারিতে মাঠে উপস্থিত প্রায় ২৪ হাজার সমর্থককে আনন্দে ভাসান দুই ব্যাটসম্যান। আবু হায়দারের করা ইনিংসের ১৬ তম ওভারে টানা ৪টি চার মারেন পেরেরা, তার আগের হাঁকিয়েছেন আরো একটি ছয়।

এরপর অবশ্য সাজঘরের পথ ধরেন তামিম। আউট হওয়ার আগে খেলেন ৫৩ বলে ৭৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। যেখানে ৬টা চারের সাথে ৪টা ছক্কা হাঁকিয়েছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। শেষদিকে মাত্র ১৭ বলে পেরেরার অপরাজিত ৪২ রানের সুবাদে নির্ধারিত ওভার শেষ ১৮০ রানের পুঁজি পায় ঢাকা। জয়ের জন্য কুমিল্লার প্রয়োজন ১৮১ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা প্লাটুন: ১৮০/৭ (২০ ওভার) তামিম ৭৪, পেরেরা ৪২, ইভান্স ২১; সৌম্য ২/৩৯, শানাকা ২/৪৮