SCORE

সর্বশেষ

তামিমের দৃষ্টিতে যেমন হবে উইন্ডিজের উইকেট

আর কদিন পরই বাংলাদেশ দল উড়াল দিবে ক্যারিবীয় অঞ্চলে, যেখানে উইন্ডিজ জাতীয় দলের বিপক্ষে খেলবে তিনটি পৃথক দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। সেই সিরিজকে সামনে রেখে সবাই আপাতত ঈদ উল ফিতরের ছুটিতে, তবে একাগ্রতা আর গভীর মনোযোগ নিয়ে মিরপুরে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন তামিম ইকবাল। অনুশীলনের ফাঁকে সোমবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ দলের সিনিয়র এই ক্রিকেটার। এ সময় তিনি বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ করেন।

'এটা শেষ নয়, কেবল শুরু!' তামিম
তামিম ইকবাল। ছবি: বিডিক্রিকটাইম

উইন্ডিজের মাটিতে বাংলাদেশ কন্ডিশনের সুবিধা পাবে না। এক্ষেত্রে টাইগারদের বড় বাধা হয়ে উঠতে পারে ক্যারিবীয় অঞ্চলের উইকেট। এমন পেস বান্ধব উইকেটে যে বাংলাদেশ অনেকটাই অজ্ঞ এবং অনভ্যস্ত! উইন্ডিজের মাটিতে কেমন উইকেট প্রত্যাশা করছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে সেখানকার চিরাচরিত প্রবণতা অনুযায়ী তামিম বলেন, খুবই সহজ এটাআমার কাছে মনে হয় প্রচণ্ড ঘাসের উইকেট হবে ওখানেশেষ দুটি টেস্ট ম্যাচে আমি তাই দেখেছিওই দুটি ম্যাচেও ঘাস ছিলো

৪ জুলাই থেকে অ্যান্টিগায় শুরু হবে ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ, আর সেখানে স্পোর্টিং উইকেটে খেলা হওয়ার সুযোগ দেখেন না তামিম, ওরা চারটা পেসার খেলায়তো, আমি নিশ্চিত স্পোর্টিং উইকেট হওয়ার সুযোগ কমবোলারদের সহায়ক হবেআশা করি আমাদের বোলাররা এর সঠিক ব্যবহার করতে পারবেন

Also Read - প্রস্তুতি নিতে বাড়ি যাননি তামিম

উইন্ডিজের ওমন ঘাসের উইকেটে খেলে অভ্যস্ত নয় বাংলাদেশ। এই কারণে পেসারদের ‘গোলা’ ছেড়ে দেওয়া উচিত হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তামিমের কথা, খুব স্বাভাবিকতবে আমার কাছে মনে হয় যেহেতু এটা ঘাসের উইকেট আমরা যদি এ ধরনের মাইন্ডসেট নিয়ে যাই যে আমাদের সার্ভাইভ করতে হবে তাহলে এটা খুবই কঠিন হবে।’

কন্ডিশনের বিপদ এড়াতে তামিম গুরুত্ব দিচ্ছেন ইতিবাচক মানসিকতা ধরে রাখাকে। তিনি বলেন, সেখানে গিয়ে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে আমাদের ভালো খেলতে হবেমানে ভালো বল ছেড়ে দেয়া, লম্বা সময় ব্যাটিং করা এসব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়াবেইতিবাচক মাইন্ডসেট আরও গুরুত্বপূর্ণ হবেআপনি যখনই রানের সুযোগ পাবেন, আপনাকে করতে হবেতাহলে আপনার মনটাও ফ্রেস থাকবে

তামিমের মতে, টেস্ট সিরিজে স্বাগতিক দলের উইকেটে গতির পাশাপাশি থাকবে যথেষ্ট বাউন্সও, বিদেশে আমরা যেকোনো সিরিজ খেলতে গেলেই এটা হয়এশিয়ান দলগুলো বাদে অন্য যে কোনো দেশ আসলেই আমরা স্পিন উইকেট প্রস্তুত করিঅনুরূপ আমরা যখন যাব ওইরকম চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবেএতটুকু বলতে পারি এটা প্রথমবারের মতো হচ্ছে নাসাউথ আফ্রিকায় গিয়েছি এমন হয়েছে, নিউজিল্যান্ডে আমরা গিয়েছি, ওখানেও হয়েছেঅতএব আমাদের খুব ভালোভাবে প্রস্তুত হতে হবে

প্রথম টেস্টের আগে বাংলাদেশ উইন্ডিজে কাটাবে সপ্তাহখানেকেরও বেশি। এটি তামিমের চোখে বড় সুবিধা, একটা ভালো জিনিস যে প্রথম টেস্টের আগে আমাদের হাতে ৭-৮ দিনের সময় আছেএই ৭-৮ দিন বা ১০ দিন খুব কাজে লাগবে

ঈদের ছুটিতে তামিমের একান্ত অনুশীলনে সহায়তা করছেন গুরু মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তার প্রসঙ্গে দেশসেরা ওপেনার বলেন, আপনারা জানেন আমি আমার ব্যাটিং নিয়ে ওনার সাথে কথা বলতে খুব পছন্দ করি এবং আমি মনে করি আমি যেভাবে খেলি উনি সেটা বোঝেনতো এক-দুইটা সেশনে আমি খুশি ছিলাম নাআমার মনে হচ্ছিলো আমি ভুল কিছু করতে যাচ্ছিএ কারণেই ওনাকে ‍আসতে অনুরোধ করেছিলাম, কী ভুল করছি এবং কী সঠিক করছিএক দুটি জিনিস উনি আজকে ধরিয়ে দিয়েছেন যে এই জিনিসগুলো আমার ঠিক হচ্ছে নাসামনে যতদিন অনুশীলন আছে, ওইসব জিনিসই ফোকাস করবো

আরও পড়ুনঃ ‘এ’ দলের স্কোয়াডে তুষার-সৌম্য-সাব্বির

Related Articles

দুই ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরলো বাংলাদেশ

বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দিতে কার্পণ্য নেই ব্র্যাথওয়েটের কণ্ঠে

ব্যাট হাতে সেরা সাকিব, বোলিংয়ে মুস্তাফিজ

বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-২০ সিরিজ জয়

বদলে গেছে ফ্লোরিডার উইকেট!