Score

‘তারপরও স্বপ্ন দেখতে হবে…’

ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে হারিয়ে যেতে বসেছিলেন। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। খেলছেন চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে। সেখানে পারফরমেন্স আগের মতো ধারালো না হলেও ধারাবাহিক রানের ফোয়ারায় অন্তত এটুকু বুঝিয়েছেন- এখনও মরচে ধরেনি ফর্মে।

ডিপিএলে আবারও আশরাফুল ঝলক।

সেই মোহাম্মদ আশরাফুল এখনও দেখছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন। দলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা কিংবা মান এখন তার ফেরার পথে প্রতিবন্ধকতা জেনেও তিনি আছেন আবারও লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্ব করার অপেক্ষায়।

Also Read - 'সাকিব এবং রশিদ প্রতি ম্যাচেই খেলবেন'

সম্প্রতি দেশের শীর্ষস্থানীয় জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোকে আশরাফুল বলেন, ‘জানি জাতীয় দলে ফেরাটা অনেক কঠিন। বাংলাদেশ দল এখন অনেক ভালো করছে। তারপরও স্বপ্ন দেখতে হবে।’

জাতীয় দলে ফেরার ইচ্ছে, সংকল্প কিংবা স্বপ্ন থেকেই ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো করতে মরিয়া আশরাফুল। তিনি বলেন, ‘এ আশা-স্বপ্ন থেকেই তো এত কষ্ট, পরিশ্রম করা। তবে এটা নিয়ে এখনই চিন্তা করছি না। এখনও সামনে প্রিমিয়ার লিগের আরেকটা ম্যাচ আছে। চেষ্টা করব আরেকটা সেঞ্চুরি করতে। সামনে বিসিএলে ম্যাচ আছে। বিপিএল আছে। বিপিএলে ভালো কিছু করতে পারলে নির্বাচক, বোর্ড বিবেচনা করতেও পারে। ধাপে ধাপে আমাকে এগোতে হবে।’

ডিপিএলে চারটি শতক হাঁকানো আশরাফুলের স্ট্রাইকরেট ছিল ৭৫-এরও কম। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘স্ট্রাইকরেট আরও বাড়বে যখন আমি আরও বেশি ফিট হব। এখনো সেভাবে ফিট না বলেই স্ট্রাইকরেট ৭৫। আরেকটু ফিট হলে এটা এমনি ৯০ হয়ে যাবে।’

নিজের ফিটনেস এবং আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার পেছনে আশরাফুল দেখছেন বন্ধু মাশরাফি বিন মুর্তজার অবদান। তার ভাষ্য, ‘যে চার বছর খেলার বাইরে ছিলাম, স্কিল ট্রেনিং করেছি। কিন্তু ফিটনেস নিয়ে তেমন কাজ করিনি। সত্যি বলতে খাওয়া-দাওয়ায় আমার কোনো নিয়ন্ত্রণ ছিল না। খেলাঘরের ম্যাচের দিন ড্রেসিংরুমে মাশরাফি এসেছিল। ওর সঙ্গে গল্প করছিলাম। আমাকে নিয়ে ওর উপলব্ধি হচ্ছে, আমি ফিটনেস নিয়ে সেভাবে পরিশ্রম করিনি।’

আশরাফুল বলেন, ‘ওর সঙ্গে কথা বলার পরই মনে হলো খাওয়া-দাওয়ায় নিয়ন্ত্রণ আনতে হবে। ফিটনেসে উন্নতি করলে স্বাচ্ছন্দে ব্যাটিং করা যাবে। খাদ্যাভ্যাসে নিয়ন্ত্রণ, কঠোর পরিশ্রম এসবই কাজে দিয়েছে। আর যেহেতু জানি, খেলাটা কীভাবে খেলতে হয়; নিজের প্রতি একটা বিশ্বাস তো ছিলই।’

আরও পড়ুনঃ ডিপিএলে আবারও প্রশ্নবিদ্ধ আম্পায়ারিং

Related Articles

কাঠগড়ায় এবার ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’ পদ্ধতি

৬ মাসেও পরিশোধ হয়নি অলকদের বকেয়া

উপরের দিকে চোখ শান্ত’র

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

বোলিং অ্যাকশন নিয়ে বাড়ছে সচেতনতা