Scores

তাসকিন-খালেদকে স্টার্ক-বুমরাহদের সাথে তুলনা ডমিঙ্গোর

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে পেসারদের পারফর্ম দেখে খুবই উচ্ছ্বসিত রাসেল ডমিঙ্গো। টাইগারদের প্রধান কোচ বিশেষ করে তাসকিন আহমেদের প্রশংসা করেছেন। তাসকিন-খালেদ-রুবেলদেরকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দলের ভরসা হয়ে ওঠা অন্যান্য পেসারদের সাথে তুলনা করেছেন তিনি।

 

Also Read - ফেনিতে আইপিএল নিয়ে জুয়া থামাতে অভিনব উদ্যোগ


গত মার্চ মাস থেকে মাঠের বাইরে ছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ওয়ানডে এই টুর্নামেন্টটি দিয়েই প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরেছে তারা। এই টুর্নামেন্টে স্পিনারদের পেছনে ফেলে আলো ছড়িয়েছেন বোলাররা। দ্রুতই বোলারদের এই উন্নতিতে খুবই খুশি ডমিঙ্গো।

তিনি বলেন, ‘গত সাত থেকে আট মাস ধরে তরুণ কিছু বোলার খুঁজছিলাম আমরা। অবশেষে এখন আমরা সেদিকে উন্নতি করছি এবং ফাস্ট বোলিংয়ের একটা গ্রুপ গড়ে তুলছি যারা দুর্দান্ত প্রতিযোগী। আমি যখন এখানে এসেছি, তখন থেকেই বলে আসছিলাম যে কিছু ভালো ফাস্ট বোলার দরকার। যাদের অনেক খেলার সুযোগ করে দিতে হবে এবং দেশ ও বিদেশে ভালো করতে হলে এগুলো লাগবেই।’

সেরা বোলারদের সাথে তুলনা করে ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমি ওদের যেভাবে দেখছি তাতে আমি খুবই উল্লসিত। দেখুন, তাসকিন কীভাবে বল করছে! প্রতিটা আন্তর্জাতিক দলেরই এমন একজন ফাস্ট বোলার থাকে, উইকেটের প্রয়োজন পড়লেই যেন তাকে ডাকা হয়। ইংল্যান্ড আর্চারকে, দক্ষিণ আফ্রিকা রাবাদাকে, অস্ট্রেলিয়া মিচেল স্টার্ককে এবং ভারত বুমরাহকে ডাকে। তাই এটা দেখে খুবই ভালো লাগছে যে এখন আমাদেরও সেরকম বোলার আছে যাদেরকে আমরা প্রয়োজনের মুহূর্তে, জোরে বল করার জন্য ডাকা যাবে।’

তাসকিন ও খালেদ দুইজনই চোটে পড়েছিলেন গত বছর। এবারে তাদের দুর্দান্ত বোলিং দেখে ডমিঙ্গো তার উচ্ছ্বাস লুকিয়ে রাখতে পারেননি। তিনি বলেন,

‘তাসকিন ও খালেদকে দেখে আমি খুবই খুশি হয়েছি। এই ওয়ানডে টুর্নামেন্ট থেকে আমরা যে একটা ইতিবাচক জিনিস নিতে পারি সেটা হলো ফাস্ট বোলারদের পারফর্ম। তারা যখন ব্যাটসম্যানদের খেলা কঠিন করে তোলে, তখন আমার খুবই ভালো লাগে। ম্যাচ জিততে হলো তো আপনাকে ১০ বা ২০টি উইকেট নিতেই হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ছয়-সাত মাসে তারা যেভাবে নিজেদের ফিট রেখেছে তার খুব বেশি প্রশংসা আমি করতে পারব না। ওরা সত্যিই কঠোর পরিশ্রম করেছে। শুধু দেখুন, তাসকিন ও রুবেল এখন কীভাবে বল করছে। বড় চোট থেকে ফিরে খালেদও দুর্দান্ত করছে। আমরা তাদের দক্ষতা নিয়ে কাজ করছি যেন আন্তর্জাতিককেও তারা এমন করতে পারে। ‘

তাসকিন-খালেদকে স্টার্ক-বুমরাহদের সাথে তুলনা

বিশেষ করে তাসকিনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন ডমিঙ্গো, ‘বড় কথা হলো, তাসকিন অনেক পরিবর্তিত হয়েছে। খুব কঠোর পরিশ্রম করছে। তার শারীরিক অবস্থাও এখন খুবই ভালো এবং দুইয়ের অধিক স্পেল সে করতে পারে। তার ফেরাটা দুর্দান্ত হয়েছে এবং আমরা খুবই খুশি। আমরা চেষ্টা করছি ছেলেরা যেন সকাল ১০টা ও বিকাল ৫টায় (দিনের শুরু ও শেষে) বেশি ভালো বোলিং করতে পারে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ লিটন

প্রথম দুই ম্যাচকে জীবনের শিক্ষা হিসেবে নিয়েছেন খালেদ

অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানো হচ্ছে সাদমান-মৃত্যুঞ্জয়কে

ভারত সফরে যাওয়া হচ্ছে না খালেদের

মুম্বাইয়ে খালেদের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন