Scores

তাসকিন জাদুতে জয় পেলো চিটাগং ভাইকিংস

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টির ৫ম আসরের সিলেট পর্বের শেষদিনের প্রথম ম্যাচে, বিপিএলে প্রথম জয় পেলো চিটাগং ভাইকিংস। বল হাতে একাই ম্যাচের দৃশ্যপট পাল্টে দেন তাসকিন।

প্রথম জয় পেলো ভাইকিংস

এর আগে টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজা। টস হেরে নিজেদের শুরুটা দারুণ করেন চিটাগং ভাইকিংসের ওপেনার লুক রঙ্কি ও সৌম্য সরকার। তবে ব্যাট হাতে মূল কাজটা করেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান রঙ্কি। রংপুর বোলারদের উপর চওড়া হন এই কিপার-ব্যাটসম্যান।

Also Read - সিলেটের দর্শক দেখে অভিভূত রংপুর রাইডার্স


তুলে নেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের দ্রুততম অর্ধশতক। দলীয় ৫৯ রানে সাত রান করে সাজঘরে ফিরেন সৌম্য। রাইডার্সের হয়ে প্রথম উইকেট এনে দেন খোদ অধিনায়ক মাশরাফি। সৌম্যর বিদায়েও ব্যাটিং তাণ্ডব থামেনি রঙ্কির। মুনাবিরাকে সঙ্গে নিয়ে দলকে বড় সংগ্রহের দিকে নিয়ে যান রঙ্কি।

ব্যক্তিগত ৩৫ বলে ৭৮ রান করে সাজঘরে ফিরেন রঙ্কি। এই কিপার-ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর ২০ রান করে আউট হন মুনাবিরাও। রঙ্কি-মুনাবিরার বিদায়ের পর ইনিংস কিছুটা স্লো হয়ে যায় ভাইকিংসদের। ১০ ওভারে ১১৩ রান তুললেও পরের ১০ ওভারে রান তুলে মাত্র ৫৩।

স্লো ইনিংস খেলেন ভাইকিংস অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক। এইদিনে ছয়ে ব্যাটিং করতে আসেন নিয়মিত ওপেনার এনামুল হক বিজয়। মিসবাহর ৩২ বলে ৩৩ এবং বিজয়ের ১৪ বলে ১৭ রানের কল্যাণে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান করে ভাইকিংস। রংপুরের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট পান বোপারা।

১৬৭ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় রংপুর। ১ রান করেই বিদায় নেন জনসন চার্লস। দলীয় ২০ রানের মাথায় ১১ রান করা জিয়াউর রহমানকে ফেরান শুভাশিস রয়। দুই ওপেনারের বিদায়ে ম্যাচে কিছুটা পিছিয়ে পড়লেও দলের ত্রাণকর্তা হিসেবে আসেন মোহাম্মদ মিঠুন ও রবি বোপারা।

দু’জনের ব্যাটে জয়ের আশা করছিলো রাইডার্সরা। দলীয় ৫৬ রানে লুইস রিসের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন ২৩ রান করা মিঠুন। তার বিদায়ে ম্যাচ থেকে কিছুটা পিছিয়ে পড়লেও দলকে আবারো ম্যাচে ফেরান বোপারা, নাফীস। দু’জনের ব্যাট থেকে আসে ৪৯ রানের জুটি।

তবে ১৩ তম ওভারে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন ভাইকিংস পেসার তাসকিন আহমেদ। পর পর ৩ বলে ৩ উইকেট নিয়ে চিটাগংকে ম্যাচে ফেরায় তাসকিন। একধারে নাফীস (২৬), শেনওয়ারী (০) এবং বোপারাকে সাজঘরে ফেরান তাসকিন। দ্রুত তিন উইকেট হারালেও রাইডার্সদের জয়ের স্বপ্ন দেখান পেরেরা কিন্তু তার ইনিংস থেমে যায় ১১ রানেই।

রংপুরের হয়ে লড়াইটা করেন দলপতি মাশরাফি কিন্তু তিনিও বিদায় নেন দ্রুত। শেষদিকে আবারো রংপুরকে জয়ের আশা দেখান মালিঙ্গা কিন্ত শেষ পর্যন্ত ১৫৫ রানেই ইনিংস থেমে যায় মাশরাফি বাহিনীদের। ভাইকিংসের হয়ে ৩টি উইকেট পান তাসকিন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

চিটাগং ভাইকিংস ১৬৬-৪ (ওভার ২০)

রঙ্কি ৭৮, মিসবাহ ৩১*: বোপারা ২-১৪

রংপুর রাইডার্স ১৫৫-৮ (ওভার ২০)

বোপারা ৩৮, নাফীস ২৬ঃ তাসকিন ৩-৩১

ফলাফলঃ ১১ রানে জয়ী চিটাগং ভাইকিংস।

 

আরো পড়ুনঃ সিলেটের দর্শক দেখে অভিভূত রংপুর রাইডার্স

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

তামিমকে টপকে সাকিব এখন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক

আত্মবিশ্বাস বাড়ানো জয়ের পরও ফাইনালে সাকিবের সতর্ক দৃষ্টি

দুর্দান্ত সাকিবে টাইগারদের জয়ের ধারা অব্যাহত

লাইভ: আফগানিস্তানকে ৪ উইকেটে হারাল বাংলাদেশ

রনির শেষ ওভারের ‘জাদুতে’ ভারতকে হারাল বাংলাদেশ