Scores

তিনটি ফলই দেখতে পাচ্ছে নিউজিল্যান্ড

বৃষ্টির কারণে ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুটি দিনই পরিত্যক্ত হয়েছে। রবিবার (১০ মার্চ) তৃতীয় দিনের খেলায় অবশ্য বৃষ্টির বাগড়ার সম্ভাবনা কম। সেক্ষেত্রে দিনের খেলা আক্ষরিক অর্থেই ‘খেলা’ হয়ে উঠতে পারে।

তিনটি ফলই দেখতে পাচ্ছে নিউজিল্যান্ড

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে বাংলাদেশ এখনও কোনো ম্যাচ না হেরে মাঠ ছাড়তে পারেনি। সেক্ষেত্রে এই টেস্ট বাংলাদেশের মনে আশা জাগাতে পারে। দুই দিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় জয়-পরাজয় আসার সম্ভাবনা যে ক্ষীণ! সেটি হলে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ড্র এর খোঁজ পাবে টাইগাররা।

Also Read - ওয়েলিংটনে তৃতীয় দিনে নেই বৃষ্টির সম্ভাবনা


তবে নিউজিল্যান্ড দলের ব্যাটিং কোচ ক্রেইগ ম্যাকমিলান মনে করেন, এখনও ওয়েলিংটন টেস্টের ফলাফল হওয়ার জন্য যথেষ্ট সময় আছে। অর্থাৎ, তার ধারণা টেস্টে জয়-পরাজয়-ড্র তিনটি ফলই আসতে পারে!

ম্যাকমিলান বলেন, ‘এখনও পর্যাপ্ত সময় আছে। তিন দিন লম্বা সময়, আমি দেখেছি অনেক টেস্টই এই সময়ে শেষ হয়েছে।’

ম্যাকমিলানের বিশ্বাস, তার দলের খেলোয়াড়রা ম্যাচে পাওয়া সুযোগগুলো কাজে লাগিয়ে ভালো ফলই এনে দেবেন। তিনি বলেন, ‘তিনটি ফলই সম্ভব। তাই যখন খেলতে নামবো, সুযোগ বুঝে তা কাজে লাগানোর চেষ্টা করবো।’

ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুই দিন সবুজ উইকেট থাকার কথাই ছিল। বৃষ্টির হাত থেকে পিচকে বাঁচাতে দুই দিন ঢেকে রাখা ছিল সেই পিচ। আর এ কারণে মাটি হয়ে আছে স্বাভাবিক অবস্থার চেয়েও নরম।

উইকেটের এই অপ্রত্যাশিত পরিবর্তনে এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করা কিছুটা কঠিন হয়ে উঠতে পারে। এ কারণে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে টস, যা স্বীকার করেছিলেন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডসও।

ম্যাকমিলান মনে করেন, সবকিছু মিলিয়ে এই ম্যাচ আগের চেয়েও বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। তিনি বলেন, ‘ওয়েলিংটনে খেললে এখানে সবুজাভ উইকেটই দুই দিন পাওয়া যায়। কিন্তু ধীরে ধীরে এর প্রকৃতি পাল্টায়। বৃষ্টিতে দুই দিন কভার দিয়ে ঢাকা মানে মাটি কিছুটা নরম থাকবে। আগের চেয়ে তাই কিছুটা রোমাঞ্চের আভাস থাকবে। দুই দলের জন্যই এটা চ্যালেঞ্জিং হয়ে দাঁড়াবে।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন ধনাঞ্জয়া

সবাইকে ছাপিয়ে ‘রাজত্ব’ দখলে নিলেন কোহলি

জয়ের ধারায় বাংলাদেশ, টুইটারে প্রশংসা ও স্বস্তি

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের উপর বেজায় চটেছেন স্টোকস

যে ম্যাচে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে দুই দলই ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া