Score

তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে সাকিব

আঙুলের ইনজুরির কারণে তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে গিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। চোটের কারণে খেলতে পারেননি সুপার ফোরের শেষ ম্যাচ এবং ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপের ফাইনাল ম্যাচটি।

তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে সাকিব

সুপার ফোরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ জিতে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন পাকিস্তানের বিপক্ষে এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠার লড়াইয়ের জন্য। ম্যাচের আগেই দুঃসংবাদ আসে বাংলাদেশ শিবিরে। আঙুলের ব্যথা বেড়েছে সাকিবের। আঙুল ফুলে পানি জমে গিয়েছিলো। সেই জন্য তড়িগড়ি করে ম্যাচের দিনই দেশের উদ্দেশে উড়াল দেন সাকিব।

ইচ্ছে ছিল মেলবোর্নে আঙুলের অস্ত্রোপচার করাবেন সাকিব। তবে ভিসা জটিলতার কারণে দেশের অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য আরকটু অপেক্ষা করলে হয়তো আরও বড় বিপদের সম্মুখীন হতে পারত সাকিবের। নিজের ইনজুরি নিয়ে কথা বলেছেন সাকিব।

Also Read - আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ 'পাঁচ' বাংলাদেশি

“আরেকটু দেরি হলে হয়তো আমি আরও বড় বিপদে পড়তে পারতাম। এখনো ইনফেকশন রয়েছে। যদি আমি আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতাম তাহলে হয়তো আঙুলটাই অকেজ হয়ে যেত। পুঁজ বের করার পর বর্তমানে একটু ভালোর দিকে আছি। তবে সমস্যা হচ্ছে এখনো ইনফেকশন রয়েছে যার কারণে এখনই সার্জারি করানো সম্ভব নয়। এইটা সারতে আরও ২-৩ সপ্তাহ লাগতে পারে। সার্জারির পর আমাকে আরও ৭-৮ সপ্তাহ বিশ্রামে থাকা লাগবে যার কারণে ৩ মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে।”

আঙুলের অস্ত্রোপচার এশিয়া কাপের আগেই করাতে চেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু একপ্রকার বাধ্য হয়েই খেলতে হয়েছে তাকে। নিজের ইনজুরির ব্যাপারে দলের ফিজিওর সঙ্গেও আলোচনা করেছিলেন তিনি। তবে তখন সাকিবের সমস্যা ধরতে ব্যর্থ হয়েছিলেন ফিজিও। তবে পুরোপুরি দোষ ফিজিওকে দিচ্ছেন না সাকিব।

“গত ১৪-১৫ দিন এভাবেই থাকতে হয়েছে আমাকে। ডাক্তার সাথে সাথেই ধরতে পেরেছিল আমার সমস্যাটা কিন্তু ফিজিও সেটা ধরতে পারেনি। তারও কিছু ভুল আছে এখানে যার কারণে কিছুটা তার উপরও বর্তায়। কিন্তু তাকে আমি পুরোপুরি দোষারোপ করছি এইটার কারণে। কেউই জানত না আঙুলে ইনফেকশন হবে।”

গত ২৬ তারিখ দেশে ফিরে আসলে পরের দিনই অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি হন সাকিব। সেখানে ছোটখাটো একটি সার্জারিও হয় সাকিবের।

আরও পড়ুনঃ আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাংকিয়ে শীর্ষ ‘পাঁচ’ বাংলাদেশি

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি