Scores

তৌহিদের সামনে বড় মঞ্চে সফল হওয়ার চ্যালেঞ্জ

একদিন পরই মাঠে গড়াবে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ। বাকি দলগুলোর মতো বাংলাদেশের যুবারাও প্রস্তুত বৈশ্বিক মঞ্চে নিজেদের প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য। অন্য বারের তুলনায় বাংলাদেশের এইবারের অনূর্ধ্ব ১৯ দল নিয়ে সকলের প্রত্যাশাটা যেনো একটু বেশিই।

তৌহিদের সামনে বড় মঞ্চে সফল হওয়ার চ্যালেঞ্জ

অনেক খেলোয়াড়ই ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে যাচ্ছেন নিয়মিত গত ১ বছরে। ব্যাটসম্যানদের মাঝে যদি একজনের নাম বলতে হয় তাহলে হয়তো সবার আগে আসবে তৌহিদ হৃদয়ের কথা। নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে ভক্তদের মনে জায়গা করে নেওয়ার আগেই হৃদয় আলোচনায় আসেন অন্য এক কারণে। ২০১৯ বিপিএলে সিলেটের হয়ে অস্ট্রেলিয়ান তারকা ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নারের সাথে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পান হৃদয়। তবে ভুল বোঝাবুঝিতে ওয়ার্নারকে রান আউট হয়ে ফিরে যেতে হয়। ওয়ার্নারের সেই রানআউটের জন্য সেই সময় ভক্তদের সমালোচনার শিকার হতে হলেও এক বছরের মাঝে পারফরম্যান্সের ফলে মুদ্রার উল্টো পিঠও দেখেছেন হৃদয়।

Also Read - গেইলকে যেভাবে আটকানোর ছক কষেছিলেন রাসেল


বাংলাদেশের এইবারের দলে সবচাইতে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়। নিউজিল্যান্ডে গত অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে খেলেছেন আফিফ, নাইমদের সাথে। তাই বিশ্বকাপে খেলার অভিজ্ঞতাটা বাকিদের তুলনায় অনেক আগেই পেয়ে গিয়েছেন হৃদয়। শুধু অভিজ্ঞতা নয় রানেও এই দলের ও সাম্প্রতিক সময়ের যুবা ক্রিকেটারদের মাঝে সেরা একজন ক্রিকেটার হৃদয়। গত বছর অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানদের মাঝে সবচাইতে বেশি রান তৌহিদের।

২০১৯ সালের একমাত্র অনূর্ধ্ব ১৯ খেলোয়াড় হিসেবে হাজার রান পার করেন। গত বছর ২০ ইনিংসে ৭৭ গড়ে তৌহিদের মোট রান সংখ্যা ছিলো ১০০১। অসাধারণ ব্যাটিং দিয়ে গত বছর দলকে বিভিন্ন সময় বিপদ থেকে উদ্ধার করা তৌহিদের উপর দায়িত্ব তাই এই বিশ্বকাপেও বাকিদের তুলনায় বেশি থাকবে।

সারা বছর অসাধারণ খেলা হৃদয় বিশ্বকাপেও নিজের ফর্ম বজায় রাখতে পারলে বাংলাদেশ দল ভালো ফলাফল আশা করতেই পারে আসন্ন বিশ্বকাপে। বাংলাদেশ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে আগামী ১৮ই জানুয়ারি।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

আকবর-ইমনদের লাখ টাকা পুরষ্কার বিকেএসপির

বাংলাদেশ ও ভারতের যুবাদের প্রতি শচীনের বার্তা

ক্রিকইনফোর বিশ্বসেরা একাদশেও নেতৃত্বে আকবর

যুবদলকে মুশফিকের ‘স্যালুট’

‘বয়স লুকিয়েছেন’ আকবর আলীরা!