Scores

ত্রিনবাগোর বিপক্ষে ‘সাকিবদের’ বড় জয়

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে ৬৩ রানের বড় জয়ের দেখা পেয়েছে বার্বাডোস ট্রাইডেন্টস। সাকিব আল হাসানবিহীন ম্যাচে ব্যাটসম্যানদের তাণ্ডব ছড়ানো ব্যাটিংয়ের পর হেডেন ওয়ালশের দাপুটে বোলিংয়ে এ জয় পায় দলটি। ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে পাওয়া এ জয়ে পয়েন্ট তালিকার চতুর্থস্থানে ওঠে এসেছে দলটি।

সিপিএলে ব্যাট-বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন ডুমিনু-ওয়ালশ।
সিপিএলে ব্যাট-বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন ডুমিনু-ওয়ালশ।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বার্বাডোস। উদ্বোধনী জুটিতে দলকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেন জনসন চার্লস ও জনাথন কার্টার। ১৩.৫ ওভারে স্কোরবোর্ডে ১১০ রান যোগ করেন তারা। অর্ধশতক তুলে নেন উভয় ব্যাটসম্যান।

৫১ রান করে কার্টার আউট হন সুনিল নারিনের বলে। তার বিদায়ের ২ বলের ব্যবধানে সাজঘরে ফিরেন চার্লসও। ৫৮ রান করা চালর্সকে আউট করেন কাইরন পোলার্ডের হাতে ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান পেইরি। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর ইনিংসের বাকিটা সময় নিজের করে নেন জেপি ডুমিনি।

Also Read - বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসায় মুগ্ধ মাসাকাদজা


সিপিএলের ইতিহাসে গড়েন দ্রুততম অর্ধশতকের রেকর্ড। মাত্র ১৫ বলে অর্ধশতক হাঁকানো ডুমিনি আউট হন ব্যক্তিগত ৬৫ রানে। তবে আউট হওয়ার আগে দলের সংগ্রহ ঠিকই নিয়ে যান প্রতিপক্ষের নাগালের বাইরে। ২০ বল মোকাবেলায় ৭ ছক্কা ও ৪ চারে ইনিংসটি সাজান তিনি।

ডুমিনি ঝড় থামার পর নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯২ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় বার্বাডোস। প্রতিপক্ষ শিবিরের বোলারদের মধ্যে পোলার্ড ও পেইরি লাভ করে দুটি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে নারিন ও লেন্ডল সিমন্স ৩০ রানের জুটি গড়েন। তবে কাজের কাজ করতে পারেননি কোনো ব্যাটসম্যানই। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে পোলার্ডরা।

লেগ-স্পিনার ওয়ালশের দাপুটে বোলিংয়ে স্কোরবোর্ডে ৮২ রান যোগ করতেই ৭ উইকেট হারিয়ে বসে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স। এর ফলে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় দলটি। শেষ পর্যন্ত ১৯ রান খরচায় ওয়ালশের ৫ উইকেট প্রাপ্তিতে ১৭.৪ ওভারেই অল-আউট হয় ত্রিনবাগো, স্কোরবোর্ডে যোগ করতে সক্ষম হয় ১২৯ রান। যার ফলে ৬৯ রানের জয় পায় বার্বাডোস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

বার্বাডোস ট্রাইডেন্টস: ১৯২/৫ ৯০ ওভার)
ডুমিনি ৬৫, চার্লস ৫৮, কার্টার ৫১; পেইরি ৪-০-২৪-২।

ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স: ১২৯/১০ (১৭.৪ ওভার)
ব্রাভো ২৮, মানরো ২৩, নারিন ১৯; ওয়ালশ ৪-০-১৯-৫।

ফলাফল: বার্বাডোস ট্রাইডেন্টস ৬৩ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা: জেপি ডুমিনি (বার্বাডোস ট্রাইডেন্টস)।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

‘অস্কার’ জিতলেন সাকিব!

মালিক হয়ে নিজ দলের ক্রিকেটারকে ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব!

সিপিএলের সেরা দল ঘোষণা, নেই গেইল-রাসেল

ব্যাটে-বলে যেমন গেল সাকিবের সিপিএল

সিপিএলের শিরোপা জিতল সাকিবদের বার্বাডোজ