দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে লঙ্কানদের সান্ত্বনার জয়

সিরিজ পরাজয় নিশ্চিত হয়েছে প্রথম তিন ম্যাচেই। তবে ভাঙা মনোবল নিয়েও যে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব সেটিই দেখিয়েছে শ্রীলঙ্কা। চতুর্থ ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয়ের পর সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকাকে দাঁড়াতেই দেয়নি স্বাগতিকরা। এই ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৭৮ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের দল।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে লঙ্কানদের সান্ত্বনার জয়

কলম্বোয় টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৯ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা। দলের পক্ষে ৯৭ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলেন অধিনায়ক ম্যাথিউস। ৯৭ বলের মোকাবেলায় ১১টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে এই ইনিংস গড়ে অপরাজিত থাকেন তিনি। এছাড়া ৪৩ রান আসে ওপেনার নিরোশাণ ডিকওয়েলার ব্যাট থেকে। অন্যান্যদের মধ্যে কুশাল মেন্ডিস ৩৮ ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৩০ রান করেন।

Also Read - মুরালি বিজয়ের তিক্ত রেকর্ড

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে অ্যান্ডিলে ফেলুকায়ো ও উইলেম মাল্ডার ২টি এবং কাগিসো রাবাদা, কেশব মহারাজ ও জুনিয়র ডালা ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই ওপেনার ও দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হাশিম আমলাকে হারায় প্রোটিয়ারা। প্রতিরোধ গড়ে তোলার আগেই ব্যক্তিগত ২০ ও দলীয় ৩১ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরেন অ্যাইডেন মারক্রাম। এরপর অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলতে থাকলেও অপর প্রান্তে ব্যাটসম্যানরা ছিলেন যাওয়া-আসায় ব্যস্ত। ফলে ডি ককের ৫৭ বলে ৫৩ রানের ইনিংসটি বৃথা যায়।

মাত্র ২৪.৪ ওভার ব্যাট করে সফরকারী দল গুটিয়ে যায় মাত্র ১২১ রানেই। শ্রীলঙ্কার পক্ষে আকিলা ধনঞ্জয়া একাই শিকার করেন ৬টি উইকেট। এছাড়া লাহিরু কুমারা দুটি এবং ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ও সুরাঙ্গা লাকমল ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

এই ম্যাচ হারলেও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ জিতেছে ৩-২ ব্যবধানে। ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন আকিলা। জেপি ডুমিনি হয়েছেন সিরিজের সেরা খেলোয়াড়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলঙ্কা ২৯৯/৮ (৫০ ওভার); ম্যাথিউস ৯৭*, ডিকওয়েলা ৪৩; মাল্ডার ৫৯/২, ফেলুকায়ো ৬০/২

দক্ষিণ আফ্রিকা ১২১/১০ (২৪.৪ ওভার); ডি কক ৫৪, মারক্রাম ২০; আকিলা ২৯/৬, কুমারা ৩৪/২

ফল: শ্রীলঙ্কা ১৭৮ রানে জয়ী।

আরও পড়ুন: “আব্বা থাকলে সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন”