দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিদায় বললেন অলিভিয়ার

মাত্র ২৬ বছর বয়সেই জাতীয় দলকে বিদায় বললেন ডুয়ানে অলিভিয়ার, কী চমৎকার ভবিষ্যতেরই না আভাস ছিল অলিভিয়েরের পারফরম্যান্সে। গত বছরের শেষ দিকে পাকিস্তানের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বল হাতে দানব হয়ে উঠেছিলেন তিনি। একের পর এক উইকেট শিকারে প্রোটিয়াদের নতুন আশা হয়ে ধরা দিয়েছিলেন ২৬ বছর বয়সী এই পেসার। পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে নিয়েছিলেন ২৪ উইকেট। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জিতেছিলেন ম্যাচসেরার পুরস্কারও।

 

Also Read - নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ টেস্ট সিরিজ শুরু কাল


ইয়র্কশায়ারের হয়ে খেলতে কলপাক চুক্তি করেছেন অলিভিয়ার। কাউন্টি ক্লাবটির সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে হয়েছে তাকে। দক্ষিণ আফ্রিকার সবশেষ ক্রিকেটার হিসেবে কলপাক চুক্তিতে জাতীয় দল ছাড়লেন এই পেসার। এই চুক্তি অর্থ হলো সবার আগে কাউন্টি ক্লাবই প্রাধান্য পাবে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে সবশেষ সিরিজেও স্টেইন-রাবাদাদের দাপটের মাঝে নিয়েছেন ৭টি উইকেট। কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যেই ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন অলিভিয়ার। যেটি তার কাছে ‘জীবনের সবচেয়ে কঠিন সিদ্ধান্ত’। নিজের ইনস্টাগ্রামে এই পেসার লিখেছেন, ‘আমার সিদ্ধান্ত অনেকের বুঝতে কঠিন হবে, তবে পেশাদারি খেলোয়াড় হিসেবে আমার জীবনটা ছোট্ট। আর এই সময়টাতে আমাকে আমার সুযোগগুলো নিতে হবে। সবদিক চিন্তা করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ মাত্র ২৬ বছর বয়সে ক্যারিয়ার সূর্যটা যখন মধ্য গগনে তখনই দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটকে বিদায় বললেন ডুয়ানে অলিভিয়ার। কাউন্টি ক্রিকেটে খেলতে এমন কঠিন সিদ্ধান্তটা নিয়েছেন প্রোটিয়া তরুণ এ পেসার।

২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সিতে তার অভিষেক হয় টেস্ট দিয়ে। সেই সুযোগটাও এসেছিলেন আরেকটি কলপাক চুক্তিতে । প্রোটিয়া পেসার কাইল অ্যাবট কলপাক চুক্তিতে কাউন্টিতে নাম লেখালে সুযোগ পেয়ে যান অলিভিয়ার তবে তার ক্যারিয়ারের সুন্দর সময়টা আসে ২০১৮ সালে পাকিস্তান সিরিজ দিয়ে। মাত্র দুই বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে ১০ ম্যাচে নিয়েছেন ৪৮ উইকেট। আর এ বছরের জানুয়ারিতে ওয়ানডেতে পা রাখা অলিভিয়ার দুই ম্যাচে পেয়েছেন ৩ উইকেট।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন