Scores

দক্ষিণ আফ্রিকার মৌমাছির চেয়ে ইংল্যান্ডের মৌমাছিরা ভালো!

এবারের বিশ্বকাপ স্মরণীয় হয়ে থাকবে অনেকগুলো কারণে। তার মধ্যে একটি খেলা চলাকালীন অবস্থায় মাঠের মধ্যে মৌমাছির আক্রমণ। শুক্রবার (২৮ জুন) চেস্টার লি স্ট্রিটে দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচে মাঠে হানা দেয় মৌমাছি। ফলে মাঠে শুয়ে পড়েন দুই দলের খেলোয়াড় ও আম্পায়াররা।

দক্ষিণ আফ্রিকার মৌমাছির চেয়ে ইংল্যান্ডের মৌমাছিরা ভালো!
চেস্টার লি স্ট্রিটে দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচে মৌমাছির আক্রমণ। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে আরও একবার মৌমাছির আক্রমণের শিকার হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কা। জোহানেসবার্গে দুই দলের মধ্যকার ম্যাচে একঝাঁক মৌমাছি এসে আক্রমণ করে। শুক্রবার কয়েক মিনিট পর মৌমাছির দলকে সরানো গেলেও জোহানেসবার্গে খেলা বন্ধ ছিল সোয়া এক ঘণ্টা!

Also Read - নিজের চেয়ে দলের প্রয়োজনকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন মোসাদ্দেক


জোহানেসবার্গে যার প্রচেষ্টায় অনেক সময় ক্ষেপণের পর মাঠকে মৌমাছিমুক্ত করা সম্ভব হয়েছিল, তিনি পিয়েরে হেফার। পেশাদার এই মৌমাছিপালক সেদিন ঘরে বসে দেখছিলেন ম্যাচটি। মৌমাছির আক্রমণের পর হঠাৎ তাকে ডেকে পাঠানো হয়। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় তাড়িয়েছিলেন অনাহূত আগন্তুকদের!

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মুঠোফোনে বিডিক্রিকটাইম প্রতিনিধি বিপিন দানিকে হেফার জানান সেদিনের কথা। তিনি বলেন, ‘এই দুই দল খেলতে নামলেই বাতাসে মৌমাছিদের গুঞ্জন শুরু হয়! সাধারণত গ্রীষ্মে তাদের চাক নষ্ট হয়ে গেলে মৌমাছিরা বাতাসে বিচরণ করে। অথবা রাণী মৌমাছি আত্মগোপন করতে চাইলে তার ৫০০০ থেকে ৫০,০০০ সদস্যের দলবল নিয়ে অন্যত্র চলে যায়।’

দক্ষিণ আফ্রিকার মৌমাছির চেয়ে ইংল্যান্ডের মৌমাছিরা ভালো!
জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচে মৌমাছির আক্রমণ। ছবি: সংগৃহীত

এই কারণেই ইংল্যান্ডের রিভারসাইড গ্রাউন্ডের মৌমাছিরা ভদ্রবেশেই দ্রুত মাঠ ছেড়ে চলে গেছে বলে মনে করেন হেফার। তিনি আরও বলেন, ‘জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়াম ও রিভারসাইড গ্রাউন্ডের পার্থক্য হচ্ছে- নিজেদের সামনে থেকে হুমকি না সরা পর্যন্ত আফ্রিকার মৌমাছিরা আক্রমণ করতেই থাকে, আর ইংল্যান্ডের মৌমাছিরা যথেষ্ট ভদ্র। শুক্রবার তারা হয়ত নতুন আবাসের খোঁজে ছিল, অথবা নতুন কোনো কাজে যুক্ত হতে ছুটছিল।’

‘আশা করি আমি কালও মৌমাছিদের তাড়াতে পারতাম!’– ইতিহাস হওয়ার সুযোগ হাতছাড়া হওয়ায় এভাবেই আক্ষেপ প্রকাশ করলেন জোহানেসবার্গের ‘কিলার বি’ খ্যাত মৌমাছিদের তাড়ানো পিয়েরে হেফার।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিশ্বকাপ ফাইনালে ধৈর্যশীলতা দেখানোর পুরস্কার জিতল কিউইরা

‘আমি সর্বদা বলি, সমর্থকরা আমাদের দ্বাদশ খেলোয়াড়’

আইসিসিকে নিশামের খোঁচা

সুপার ওভারের নিয়মে পরিবর্তন আনল আইসিসি

বিশ্বকাপ-ফাইনালের বিতর্কিত নিয়ম ‘চলবে না’ বিগ ব্যাশে!