Scores

‘দলের পরিবর্তন ও সাফল্যে বড় ভূমিকা রয়েছে কোচ-অধিনায়কের’

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে এক অন্যরকম বাংলাদেশ দলকে দেখা গিয়েছে; বিশেষ করে একদিনের ক্রিকেটের সংস্করণে। বাংলাদেশ দলের এই বদলে যাওয়া এবং দুর্দান্ত সাফল্যের পেছনে কোচ ও অধিনায়কের সবচেয়ে বড় ভূমিকা আছে বলে মনে করেন সাব্বির রহমান। জুনিয়র ক্রিকেটারদের প্রতি সিনিয়রদের সমর্থনও এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করে।

'দলের পরিবর্তন ও সাফল্যে বড় ভূমিকা কোচ-অধিনায়কের'

সাব্বিরের অভিষেকের পর থেকেই তিনি দেখে আসছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের একটা বড় পরিবর্তন। ২০১৫ সালের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশ দলকে বড় কোনো টুর্নামেন্টে অথবা দ্বিপাক্ষিক সিরিজে এভাবে ধারাবাহিক সাফল্য পেতে যায়নি। বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার পরেই ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলের বিপক্ষে সিরিজ জয় করে বাংলাদেশ। পরের বছর ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াকে টেস্টে পরাজিত করে। ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সেমিফাইনালে ওঠে টাইগাররা।

Also Read - দুর্দান্ত ব্রডের তোপে সিরিজ জিতে নিল ইংল্যান্ড


২০১৫ সাল থেকেই চোখে পড়ার মতো পরিবর্তন শুরু হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটে। এই পরিবর্তনের পেছনে কোচ ও অধিনায়কের বড় ভূমিকা দেখেন সাব্বির। তবে কোনো কোচ বা অধিনায়কের নাম উল্লেখ করে বলেননি তিনি। এই পুরো সময়টাতে বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। একটা বড় সময় ধরেই কোচ ছিলেন চন্ডিকা হাথুরাসিংহে। তাছাড়া টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা অধিনায়কত্ব করেছেন।

বিডিক্রিকটাইমের সরাসরি আড্ডায় সাব্বির বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ দল যখন পুরো এক হয়ে খেলি তখন কোনো দলই আমাদের কাছে বড় মনে হয় না। একটা দল হয়ে একসাথে খেললে আমরা যেকোনো দলকে হারাতে পারি এবং এভাবে আমরা সাফল্য অর্জনও করেছি। এক্ষেত্রে কোচ ও অধিনায়ক অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মোটিভেট করার জন্য তাদের গুরুত্ব অনেক বেশি। বড় টুর্নামেন্টে প্রথম দুইটা ম্যাচ জিতে গেলে অনেক আত্মবিশ্বাস চলে আসে। ২০১৫ বিশ্বকাপে এটা আমাদের হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়, কোচ ও অধিনায়ক খুব গুরুত্বপূর্ণ; সেই সাথে খেলোয়াড়দের সমর্থন।’

এছাড়া দলের পরিবর্তনে ও সাফল্যের মূলে সিনিয়র ও জুনিয়র ক্রিকেটারদের সম্পর্কও বড় ভূমিকা রাখে বলে মনে করেন সাব্বির।

সাব্বিরের ভাষ্যমতে, ‘আমার মনে হয়, জুনিয়র ক্রিকেটাররা যখন দলে আসে তখন যদি সিনিয়ররা ভালোভাবে তাদের সবক্ষেত্রে সমর্থন দেয় তাহলে অবশ্যই পরিবর্তন সম্ভব। সিনিয়র ও জুনিয়রদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক, বোঝাপড়া থাকলে কোনো দলকে হারানো আমাদের জন্য অসম্ভব কিছু না। আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেললে সবসময় ভালো ফলাফল আসবে, ইনশা-আল্লাহ।’

সাব্বির রহমানের পুরো সাক্ষাৎকারটি দেখুন এখানে :

Related Articles

লকুহেতিগেকে ‘৮’ বছরের নিষেধাজ্ঞা দিল আইসিসি

বিশ্বকাপে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে মুখ খুললেন ডি ভিলিয়ার্স

ব্যর্থতার সব দায়ভার নিজের কাঁধে নিলেন বাউচার

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের মিডল অর্ডারে মালিককে চান আফ্রিদি

জিম্বাবুয়ের টি-টোয়েন্টি দলে ‘৩’ নতুন মুখ