দলের সবচেয়ে সিনিয়র হয়েও পানি টানলেন ধোনি

0
787

ক্রিকেট ম্যাচ চলাকালে যেসব খেলোয়াড় মাঠের ভেতরে ব্যস্ত থাকেন না, মাঠে সতীর্থদের বিভিন্ন অনুষঙ্গ বা পানীয় পরিবহণ করার দায়িত্ব পালন করেন তারাই। তবে এই কাজটি মূলত করে থাকেন দলের কনিষ্ঠ বা জুনিয়র সদস্যদের কেউ। কখনও কখনও দুই-একটা পানির বোতল হাতে দলনেতাকেও এই ভূমিকায় দেখা যায়, যা একইসাথে খেলার কৌশল সতীর্থদের সাথে ভাগাভাগি করার সুযোগ করে দেয়।

দলের-সবচেয়ে-সিনিয়র-হয়েও-পানি-টানলেন-ধোনি
ছবিঃ টুইটার

তবে দলের সবচেয়ে সিনিয়র খেলোয়াড় যখন এই কাজটি করেন? তাও অল্পকিছু দরকারি জিনিস হাতে নিয়ে মাঠে ছুটছেন এমনও নয়। ডাগআউট থেকে সতীর্থদের দিকে যাচ্ছেন পুরো সাপোর্ট কিটস কাঁধে নিয়ে! ভাবা যায়?

Advertisment

অভাবনীয় হলেও শুক্রবার হয়েছে এমনটাই। আর এই অভাবনীয় ক্রিকেটীয় সৌন্দর্যের জন্ম দিয়েছেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে এদিন বিশ্রামে ছিলেন ধোনি, তাই ছিল না মাঠে নামার তাগদা। ভারতের ইনিংসে ব্যাট করছিলেন সুরেশ রায়না ও মানিশ পাণ্ডে। এরই ফাঁকে ধোনি সাপোর্ট কিটসে কয়েকটি ব্যাট ও পানিভর্তি বোতল নিয়ে প্রবেশ করেন মাঠে, সতীর্থদের কাছে ছুটে যান দলের একনিষ্ঠ একজন কর্মী হিসেবে।

৩৬ বছর বয়সে ধোনির এমন উদার আচরণ সবাইকে অবাক করার পাশাপাশি বাড়িয়েছে তার সম্মানও। ২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে যখন ধোনির আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু হয়, তখন যেমনি জুনিয়র সদস্য হিসেবে পানি বা বিভিন্ন আনুষঙ্গিক জিনিস মাঠে নিয়ে গিয়ে দলের একনিষ্ঠ কর্মী হয়ে কাজ করতেন, দলকে বিশ্বকাপ জেতানোর পর মোস্ট সিনিয়র হয়ে খেলার সময়ও এখনও সেই মানসিকতাই বয়ে চলেছেন ২০১১ সালে ভারতকে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ও ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপ জেতানো এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান।

উল্লেখ্য, ধোনির এই প্রশংসনীয় আচরণের দিনে আইরিশদের ১৪৩ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে ভারত।

আরও পড়ুনঃ অ্যান্টিগায় চলছে পেসারদের দাপট