দল পেলেন না নাফীস-রাজ্জাক-নাঈমরা

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ছিল ১৫৭ জন ক্রিকেটারের নাম। প্রত্যেক দল ১৬ জন করে ক্রিকেটার নেওয়ায় পাঁচ দলে সর্বমোট জায়গা হয়েছে ৮০ ক্রিকেটার। দল পাননি শাহরিয়ার নাফীস, আব্দুর রাজ্জাক, জুবায়ের হোসেন লিখন, সাদমান ইসলাম অনিক, জুনায়েদ সিদ্দিকী, নাঈম ইসলামরা!

দল পাননি নাফীস-রাজ্জাক-নাঈমরা

Advertisment

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপের জন্য ফিটনেস টেস্টে বেশ ভালো করেছিলেন ৩৫ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফীস এবং ৩৩ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান জুনায়েদ সিদ্দিকী। দুজনই ছিলেন ‘ডি ক্যাটাগরিতে।  এ দুজনের কাউকে নিতে আগ্রহী হয়নি কোনো দল।

করোনাভাইরাসের কারণে থমকে যাওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে একটি ম্যাচ খেলে ৯৭ রান করেছিলেন জুনায়েদ। শাহরিয়ার নাফীসকে এ বছরের বিসিএলে সর্বশেষ দেখা গিয়েছে। ‘ডি’ ক্যাটাগরির ব্যাটিং অলরাউন্ডার ৩৩ বছর বয়সী নাঈম ইসলামও দল পাননি। জাতীয় দলের হয়ে ৮ টেস্ট, ৫৯ ওয়ানডে আর ১০ টি-২০ খেলা নাঈম ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ছিলেন লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের ক্রিকেটার।

এছাড়া ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দল পাননি ২৫ বছর বয়সী সাদমান ইসলাম। জাতীয় দলের হয়ে ৬ টেস্ট খেলা এ ওপেনার সর্বশেষ বিপিএলে রংপুর রেঞ্জার্সের হয়ে খেলেছিলেন।

৩৮ বছর বয়সী স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকও রয়ে গিয়েছেন অবিক্রীতদের তালিকায়। ২০১৯ সালের ডিপিএল টি-২০ তে তিনি সর্বশেষ ২০ ওভারের ম্যাচ খেলেন। প্রায় এক বছর আগে সর্বশেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলা লেগি জুবায়ের হোসেন লিখনকেও কেউ কিনেনি। ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ ছাড়া  আর কোনো স্বীকৃত টি-২০ ম্যাচ খেলা হয়নি তার।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।