দীর্ঘদিন পর্যবেক্ষণের পর দলে শামিম, টেস্ট দলের ভাবনায় ইয়াসির

0
1178

২০২০ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছিল বাংলাদেশ। সেই দলের প্রথম সদস্য হিসেবে জাতীয় দলে খেলেছেন পেসার শরিফুল ইসলাম। এবার ডাক পেয়েছেন অলরাউন্ডার শামিম হোসেন পাটোয়ারিও। 

দীর্ঘদিন পর্যবেক্ষণের পর দলে শামিম, টেস্ট দলের ভাবনায় ইয়াসির (2)

Advertisment

সদা হাস্যজ্বল ও চনমনে ক্রিকেটার শামিম ইতোমধ্যে দেশের ক্রিকেটে পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন। বিশ্বকাপে তো বটেই, বিশ্বকাপ পরবর্তী সময়েও ঘরোয়া ও জাতীয় পর্যায়ে তার পারফরম্যান্স চমক জাগানিয়া। তরুণ এই ক্রিকেটারকে জিম্বাবুয়ে সফরের টি-টোয়েন্টি দলে রেখেছেন নির্বাচকরা।

দল ঘোষণা শেষে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানান, দীর্ঘ সময় ধরেই শামিম ছিলেন তাদের পর্যবেক্ষণে। তাকে দলে নিতে কোনোরকম তাড়াহুড়া করা হয়নি। জাতীয় দলের হয়ে শামিম ভালো করবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন নান্নু।

তিনি বলেন, ‘শামিম পাটোয়ারি অনূর্ধ্ব-১৯ শেষ করে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বাংলাদেশ সফরে এইচপির হয়ে খেলেছিল। তখন থেকেই ওকে মনিটরিং করা হচ্ছে। ও যথেষ্ট ভালো খেলেছে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ এর বিপক্ষে। আমাদের সীমিত ওভারের ক্রিকেটেও যথেষ্ট ভালো খেলেছে। আশা করছি ওর যে স্কিল আছে তাতে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে আমরা অনেক উপকৃত হব।’

শামিম ছাড়াও ঘোষিত স্কোয়াডে অনভিষিক্ত ক্রিকেটার হিসেবে আছেন ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি, যিনি জাতীয় দলের সাথে আছেন অনেক দিন ধরেই। এবার তিনি সুযোগ পেয়েছেন টেস্ট দলে। ইয়াসিরের এখনও অভিষেক না হলেও টেস্টের বিবেচনায় তিনি শক্তপোক্তভাবে আছেন বলেই জানালেন প্রধান নির্বাচক নান্নু।

তিনি বলেন, ‘ওকে লঙ্গার ভার্শনের জন্য তৈরি করার একটা চিন্তাভাবনা চলছে টিম ম্যানেজমেন্টের। এতে ওরা যথেষ্ট সন্তুষ্ট। হেড কোচ ওকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী। ম্যাচ খেলার সুযোগ হচ্ছে না কারণ ফ্রন্ট লাইনে যারা ভালো খেলছে ওদের তো বাদ দেওয়া যায় না। যেহেতু পাইপলাইনের মধ্যে আছে, যেকোনো সময় খেলার সুযোগ আসবে। ওকে প্রস্তুত করাও গুরুত্বপূর্ণ। এ কারণেই ওকে সাথে রাখা।’