Scores

দুই রনিতে ম্লান আকবর-আমিনুলের ঝড়

প্রথমে ব্যাট হাতে ১৬ বলের ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেললেন রনি তালুকদার। এরপর বল হাতে দ্যুতি ছড়ালেন গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের আরেক রনি। বাঁহাতি পেসার আবু হায়দার রনির মিতব্যয়ী বোলিংয়েই মূলত ম্যাচে পার্থক্য গড়ে ওঠে। যার ফলে ঢাকা পড়ে যায় দুই বিকেএসপি ব্যাটসম্যান আকবর আলি ও আমিনুল ইসলামের লড়াকু ইনিংস।

আর এতেই বড় সংগ্রহের পর কার্টেল ওভারের ম্যাচটি ২৭ রানে জিতে নেয় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

Also Read - রনি-সাজ্জাদুল ঝড়ে গাজী গ্রুপের বড় সংগ্রহ


আগে ব্যাট করে গাজী গ্রুপের ছুড়ে দেওয়া ১২৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই খেই হারিয়ে ফেলে বিকেএসপি। রনি-মেহেদির বোলিং তোপে স্কোরবোর্ডে ৬ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসে দলটি। এরপর দলের হাল ধরেন আকবর ও আমিনুল।

দুজনে মিলে চতুর্থ উইকেট জুটিতে খেলতে থাকেন মারকুটে ইনিংস। জুটিতে ৭৯ রান যোগ করেন দুজন। ২০ বল মোকাবেলায় ২ চার ও ৪ ছক্কায় ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন আকবর। এর মাঝে এক ওভারে তুলে নেন ৩ ছক্কা ও ২ চারে ২৬ রান। যোগ্য সঙ্গ দিয়ে ২৪ বলে দ্রুতগতির ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন আমিনুলও।

তবে এতেও কাঙ্ক্ষিত অর্জনের দেখা পায়নি বিকেএসপি। এমন মারকুটে ব্যাটিংয়ের পরও ইনিংসের শুরুর ধাক্কাটা ক্ষত হয়েই থেকে যায় বিকেএসপির। শেষ পর্যন্ত ১০ ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৯৬ রান।

গাজী গ্রুপের বোলারদের মধ্যে ২ ওভার থেকে মাত্র ২ রান খরচায় ২ উইকেট নেন আবু হায়দার রনি। তাছাড়া মেহেদি ও রাব্বি লাভ করেন একটি করে উইকেট।

এর আগে, ভেজা আউটফিল্ডের জন্য ফতুল্লায় নির্ধারিত সময়ের বেশ পরে মাঠে গড়ায় দু’দলের মধ্যকার ম্যাচটি। প্রতিপক্ষ বিকেএসপির আমন্ত্রণে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ পায় গাজী গ্রুপ। দলকে স্বপ্নের মতো শুরু এনে দেন ওপেনার রনি তালুকদার ও ওয়ালিউল করিম।

দুজনে মিলে উদ্বোধনী জুটিতে মাত্র ৫.১ ওভারে যোগ করেন ৬২ রান। রনির ঝড়ো ব্যাটিংয়ের মতো ঝড় তুলতে না পারলেও রানের গতি ঠিকই বাড়িয়ে যান ওয়ালিউল। আউট হওয়ার আগে করেন সমান ২ চার ও ছয়ে ১৮ বলে ২৫ রান। তার বিদায়ের পর ক্রিজে এসে সুবিধা করতে পারেননি শামসুর রহমান।

ব্যক্তিগত ১ রানে তার ফিরে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর আউট হন রনিও। তবে আউট হওয়ার আগে কাজের কাজটি ঠিকই করে দিয়ে যান তিনি। খেলেন ১৬ বলে ৪১ রানের টর্নেডো ইনিংস। ২ চার ও ৪ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান তিনি।

ফাইল ছবি

দ্রুত ২ উইকেট নিয়ে খেলায় ফেরার আভাস দিলেও শেষ পর্যন্ত তা আর হয়ে ওঠেনি বিকেএসপির। গাজী গ্রুপের ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় বড় সংগ্রহের দেখা ঠিকই পেয়ে যায় দলটি। নির্ধারিত ১০ ওভার শেষে স্কোরবোর্ডে ৪ উইকেটে ১২৩ রান যোগ করে দলটি। দলকে এমন সংগ্রহ এনে দিতে শেষ দিকে মূখ্য ভূমিকা পালন করেন সাজ্জাদুল হক, মাইশুকুর রহমান ও তৌহিদ তারেকরা।

১ চার ও ২ ছক্কায় সাজ্জাদুল ৮ বলের ২০ রানের ইনিংস খেলে আউট হন। তিনি আউট হলেও অপরাজিত থাকেন মাইশুকুর ও তৌহিদ। শেষ পর্যন্ত ১১ বল থেকে মাইশুকুর ১৯ ও ৬ বলে ১১ রান করে মাঠ ছাড়েন তৌহিদ।

বিকেএসপির বোলারদের মধ্যে ২ ওভার থেকে ২০ রান খরচায় সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট লাভ করেন নওশাদ ইকবাল।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড
গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স: ৪ উইকেটে ১২৩ রান (১০ ওভার)।
রনি ৪১(১৬), ওয়ালিউল ২৫(১৮), সাজ্জাদুল ২০(৮); নওশাদ ২-০-২০-৩।

বিকেএসপি: ৪ উইকেটে ৯৬ (১০ ওভার)।
আকবর ৪৩(২০), আমিনুল ৩৪**(২৪); আবু হায়দার ২-১-২-২।

ফলাফল: গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স ২৭ রানে বিজয়ী।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

হৃদয়ের ঝড়ো শতকে রান পাহাড়ে যুবারা

নিউজিল্যান্ডে বিশেষ নজর থাকবে ৫ প্রতিভার উপর

অধিনায়কের দায়িত্বের পূর্ণ প্রতিদান দিলেন আকবর আলি

নেপালকে হারিয়ে সেমিফাইনালের পথে বাংলাদেশ

ভারতকে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে বাংলাদেশের যুবারা