Scores

দুর্দান্ত জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

ডাবলিনে উইন্ডিজকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে জয়ে অবদান রেখেছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৬৩ রান করেন মুশফিক।

সৌম্য-সাকিব মিলে গড়েন ৫২ রানের জুটি। ছবিঃ গেটি

ত্রিদেশীয় সিরিজে উইন্ডিজ স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে আগেই। ফাইনাল নিশ্চিতে সিরিজে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে উইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের মত এই ম্যাচে আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিলো দুই ওপেনার শেই হোপ ও অ্যামব্রিজ। তবে তাদের জুটি বেশীক্ষণ টিকেনি। ব্যক্তিগত ২৩ রান করে মাশরাফির বলে স্লিপে সৌম্যর হাতে ক্যাচ তুলে দেন অ্যামব্রিজ। উইন্ডিজ শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন মিরাজ। একবার জীবন পাওয়া ড্যারেন ব্রাভো আউট হন তার ক্যাচ মিস করা মিরাজের বলেই। রোস্টন চেজ ও কার্টারও টিকেননি ক্রিজে।

Also Read - প্লাঙ্কেটের বিরুদ্ধে টেম্পারিংয়ের অভিযোগ উড়িয়ে দিল আইসিসি


দুইজনকেই আউট করেন মুস্তাফিজ। তবে অন্যপাশ থেকে ধরে রেখেছেন হোপ। হোল্ডারের সঙ্গে ১০০ রানের জুটি গড়ে ভালো স্কোরের ইঙ্গিত দেন। ফিফটি হাঁকান দুই ব্যাটসম্যানই। সেঞ্চুরির কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি করতে পারেননি হোপ। ৮৭ রানে মাশরাফির বলে আউট হন হোপ।
তাদের বিদায়ের পর ৬২ রান করে মাশরাফির বলে আউট হন হোল্ডার। শেষ পর্যন্ত নার্সের ১৪ রানে ২৪৭ রান সংগ্রহ করে উইন্ডিজ। ৪টি মুস্তাফিজ ও ৩টি উইকেট পান মাশরাফি।

উইকেট উদযাপনে বাংলাদেশ। ছবিঃ গেটি

উইন্ডিজের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে এইবার বাংলাদেশকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার তামিম ও সৌম্য। তবে দুইজনেই জুটি ভাঙে দলীয় ৫৪ রানে। আগের ম্যাচে দারুণ ব্যাট করা তামিম আউট হন ২১ রানে। সাকিব-সৌম্য মিলে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন। আগের ম্যাচের মত এই ম্যাচেও ফিফটি হাঁকান সৌম্য। ব্যক্তিগত ২৯ রান করে নার্সের বলে আউট হন সাকিব। তার বিদায়ের পরপরই আউট হন ৫৪ রান করা সৌম্য।

১০৭ রানে ৩ উইকেট পড়লে দলের হাল ধরেন মুশফিক ও মিঠুন। দুইজনেই বেশ দায়িত্ব নিতে ব্যাটিং করেন। মুশফিক ও মিঠুনের দায়িত্বশীল ব্যাটিং দলকে জয়ের দিকেই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলো। দুইজন মিলে গড়েন ৮৩ রানের জুটি। কয়েকবার জীবন পেয়েও ফিফটি করতে পারেননি মিঠুন। আউট হন ৪৩ করে। দলের জয়ের কাজটা আরও সহজ করে দেন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ জুটি।

দুইজনেই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। এরই মাঝে ফিফটি তুলে নেন মুশফিক। তবে ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি মুশফিক। ৬৩ রান করে আউট হন তিনি। শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহর অপরাজিত ৩০ রানে ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

উইন্ডিজ ২৪৭-৯ (ওভার ৫০)

হোপ ৮৭, হোল্ডার ৬৫: মুস্তাফিজ ৪-৪৬

বাংলাদেশ ২৪৮-৫ (ওভার ৪৭.২)

মুশফিক ৬৩, সৌম্য ৫৪: নার্স ৩-৫৩

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বাংলাদেশ সফরে আসছে না জিম্বাবুয়ে

বিপিএল মাতাতে আসছেন ডুমিনি

বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার স্কোয়াডে কেন এত খেলোয়াড়?

প্রস্তুতি ম্যাচেই বড় পরীক্ষা দিতে হবে টাইগারদের

কড়া নিরাপত্তায় কলম্বো পৌঁছাল বাংলাদেশ দল