Scores

দুর্দান্ত তাসকিন-মুস্তাফিজে রংপুরের স্বস্তির জয়

চলতি বিপিএলে প্রথমবারের মত মুখোমুখি হয়েছিল উত্তরবঙ্গের দুই দল রাজশাহী রয়্যালস ও রংপুর রেঞ্জার্স। যেখানে উত্তরবঙ্গ ডার্বিতে শেষ হাসি রংপুরের। শুরুতে নাইম শেখের ফিফটির পর তসকিন আহমেদের অনবদ্য বোলিংয়ে ৪৭ রানের জয় পেয়েছে দলটি।

প্রথম জয়ের দেখা পেল রংপুর

এদিন আগে ব্যাট করে রাজশাহীর সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য দাঁড় করে রংপুর। পাহাড়সম এই টার্গেট টপকাতে নেমেও ধীরগতির শুরু করেন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন দাস ও আফিফ হোসেন। ইনিংসের চতুর্থ ওভারের সময় আফিফ যখন ৭ রান করে তাসকিনের প্রথম শিকারে পরিণত হন, তখন রয়্যালসদের দলীয় রান ১২।

Also Read - কাউকে অনুকরণ নয়, নিজের মতই খেলেন শান্ত


খানিক বাদে পর পর দুই বলে লিটনকে ১৭ বলে ১২ ও শোয়েব মালিককে ০ রানে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন তাসকিন। এরপর অলক কাপালিও ২৮ বলে ৩১ রান করে আউট হলে ৬৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে পদ্মা পাড়ের দলটি।

সেখান থেকে রাজশাহীর হাল ধরার চেষ্টা করেন রবি বোপারা ও নাহিদুল ইসলাম। তবে পঞ্চম উইকেটে ২৭ রানের বেশি যোগ করতে পারেননি দুজন। বোপারা ২৮ ও নাহিদুল আউট হন ১৯ রান করে। শেষদিকে আন্দ্রে রাসেল ঝড় তুললেও ৭ বলে ১৭ রান করে রান আউট হয়ে যান তিনি।

কার্যত ওখানেই শেষ হয়ে যায় রাজশাহীর জয়ের আশা। পরে দলটির আর কোন ব্যাটসম্যান প্রতিরোধ করতে না পারলে ১৩৫ রানে থামে রাজশাহীর ইনিংস। ফলে ৪৭ রানে জয় তুলে মাঠ ছাড়ে রংপুর রেঞ্জার্স। ম্যাচে রংপুরের হয়ে একাই ৪ উইকেট পেয়েছেন তাসকিন আহমেদ।

এর আগে টসে হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নামে রংপুর রেঞ্জার্স। দলের হয়ে ইনিংস শুরু করতে আসেন দুই ব্যাটসম্যান শেন ওয়াটসন ও নাইম শেখ। উদ্বোধনী জুটিতে দুজন যোগ করেন ৩৮ রান। তবে আগের দুই ম্যাচের মত এই ম্যাচেও রান পাননি অধিনায়ক ওয়াটসন। অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ৭ রান করে আউট হওয়ার পর ক্যামেরুন ডেলপোর্টকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ৫৪ রানের জুটি গড়েন নাইম। এরই ফাকে তুল নেন চলতি বিপিএলে নিজের দ্বিতীয় ফিফটি।

৪০ বলে অর্ধশতক পূরণ করা নাইম পরে সাজঘরে ফেরেন ৫৫ রান করে। মাঝে ডেলপোর্টের ব্যাট থেকে আসে ৩১ রান। এরপর গ্রেগরির ১৭ বলে ২৮ ও মোহাম্মদ নবীর ১৬ রানের সাথে শেষদিকে আল-আমিন জুনিয়রের ১৫ এবং জহুরুল ইসলামের ৮ বলে অপরাজিত ১৯ রানের কল্যাণে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮২ রানের সংগ্রহ পায় রংপুর রেঞ্জার্স। রাজশাহীর হয়ে মোহাম্মদ ইরফান ও আফিফ হোসেন নেন দুইটা করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রংপুর রেঞ্জার্স: ১৮২/৬ (২০ ওভার)
নাইম ৫৫, ডেলপোর্ট ৩১, গ্রেগরি ২৮; ইরফান ২/৩৫, আফিফ ২/৪০।

রাজশাহী রয়্যালস: ১৩৫/৮ (২০ ওভার)
অলক ৩১, বোপারা ২৮, নাহিদুল ১৯; তাসকিন ৪/২৯, গ্রেগরি ২/২৮।

ফল: রংপুর ৪৭ রানে জয়ী।

Related Articles

বিশ্বমানের পেসার হতে আরও পরিশ্রম করতে চান তাসকিন

চার সতীর্থকে নিয়ে ফেসবুক লাইভে আসছেন সাকিব

সাকিবের স্বীকৃতিতে সতীর্থদের উচ্ছ্বাস

সবার বিরোধিতা করে তাসকিনকে দলে নিয়েছিলাম : সুজন

তাসকিনদের শৃঙ্খলা মেনে চলার আহ্বান সুজনের