Scores

দেশের ক্রিকেট আকাশ অন্ধকারাচ্ছন্নের এক মাস

সবই চলছিল ঠিকঠাক। তবে হঠাৎ করে শঙ্কা উদয় হয় ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে। সেই সিরিজ কোনোরকমে শেষ হবার পর মাঠে গড়ালো ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। তবে এবার আর শেষরক্ষা হলো না। বাধ্য হয়ে গত ১৯ মার্চ ক্রিকেট বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়। আজ (রোববার) ১৯ এপ্রিল। টানা একমাস অন্ধকারে ঢেকে আছে দেশের ক্রিকেট।

চীনের উহান রাজ্যে প্রথমবারের মত উপস্থিতি টের পাওয়া যায় করোনাভাইরাসের। সময় গড়ানোর সাথে যা ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বিশ্বে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ চলার সময় কোভিড-১৯ এর আতঙ্ক জেঁকে ধরে বাংলাদেশকে। যার কারণে টিকিট বিক্রি কিছুটা কমিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

Also Read - করোনায় ‘দুরকম’ সময় কোচদের


সেই সিরিজ শেষ হবার পর করোনা আতঙ্ক মাথায় নিয়েই বেশ ঘটা করে গত ১৫ মার্চ শুরু হয় ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের চলতি মৌসুমের খেলা। তবে খুব বেশিদিন স্থায়ী হয়নি তা। পরের দিনই ঘোষণা আসে আপাতত স্থগিত রাখা হচ্ছে টুর্নামেন্টটির দ্বিতীয় রাউন্ড। এরপর পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে যায়।

গত ১৯ মার্চ প্রেক্ষাপট বিবেচনায় এনে জরুরিভাবে বোর্ড সভায় বসেন বিসিবি কর্তারা। সেই সভা শেষে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়ে দেন, পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ক্রিকেট এবং ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সকল কার্যক্রম স্থগিত রাখা হলো।

যেদিন ক্রিকেট বন্ধের ঘোষণা দেন পাপন, সেদিন দেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৭ জন, মৃত ১ জন। তবে যত দিন গড়াচ্ছে ততই বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। পূর্বের রেকর্ড ছাড়াচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ২৪৫৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন, মারা গাছেন ৯১ জন।

আজ টানা এক মাস দেশের ক্রিকেট আকাশ অন্ধকারাচ্ছন্ন। এর ফলে ঘরোয়া ক্রিকেট তো বন্ধ আছেই, সাথে পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ড সফর স্থগিত হয়ে গেছে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা থাকলেও আপাতত আসছে না অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। একই সাথে শঙ্কা তৈরি হয়েছে আসন্ন এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েও।

পরিস্থিতি যেদিকে গড়াচ্ছে তাতে আবার কবে নাগাদ সবকিছু স্বাভাবিক হবে, আবার কবে মিরপুরে তথা দেশের ক্রিকেট আকাশে আলো ফিরবে তা নিশ্চিত করতে পারেননা কেউই। বলতে পারেননা বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খানও।

এ প্রসঙ্গে আকরাম বলেন, ‘ক্রিকেট, জানি না কি হবে। একটি মাস তো হয়ে গেল। যত দিন যাচ্ছে ততো আর ক্রিকেট নিয়ে ভাবতে পারছি না। এখন  পরিস্থিতি যে দিকে যাচ্ছে, জীবন বাঁচানোটাই কঠিন। আর বড় কথা হলো ক্রিকেট কেন, সব কিছুই গোটা পৃথিবীতে বন্ধ। যতগুলো দেশ ক্রিকেট খেলে আমাদের মতই তাদের অবস্থা।’

করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন ক্রিকেট বন্ধ থাকলেও সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব। তবে মানুষের যে ক্ষতি হচ্ছে তা কোনভাবেই পুষিয়ে নেয়া যাবে না বলে মনে করেন আকরাম, ‘যদি পরিস্থিতি ভালো হয় তাহলে আবার ক্রিকেট মাঠে ফিরবে। আর যদি এইভাবে চলতে থাকে সবারই ক্ষতি হবে। শুধু আমাদের চিন্তা করলে হবে না। আমি মনে করি এখন ক্রিকেটের চেয়ে মানুষের চিন্তা করাটাই আসল।’

‘এই বিপর্যয়ের পর আমরা হয়তো ক্রিকেটের ক্ষতিটা একটু হলেও পুষিয়ে নিতে পারবো। নতুন করে সব নির্ধারণ হবে। সব নতুনভাবে করে নেয়া যাবে। কিন্তু মানুষের যে ক্ষতি হচ্ছে তা একেবারেই পুষিয়ে নেয়া যাবে না, কোনোভাবেই। আশা করি সব ঠিক হয়ে যাবে। আবার সব কিছু আগের মত হবে। আমরা সবাই এটাই প্রার্থনা করি।’ সাথে যোগ করেন তিনি।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

শ্রীলঙ্কায় আইসোলেশনে থাকতে হবে না বাংলাদেশ দলকে

ক্রিকেটারদের জীবন নিয়ে ঝুঁকি নেবে না বিসিবি

ঈদের পরই টাইগারদের অনুশীলন ক্যাম্প, তবে…

তামিম-মুশফিকদের বাধ্যবাধকতা নেই, স্মিথ-ওয়ার্নারদের জন্য চিরস্থায়ী!

তামিম-আকবরদের জন্য মনোবিদের ভাবনা বিসিবির