ধোনির বিশ্বরেকর্ড ভাঙা হল না সাকিবের

আর মাত্র চারটি ইনিংসে এলবিডব্লিউ না হলেই মহেন্দ্র সিং ধোনির রেকর্ড ভাঙা হত সাকিব আল হাসানের। তবে দুর্ভাগ্য, টি-টোয়েন্টিতে এলবিডব্লিউ না হয়ে টানা ইনিংস খেলার রেকর্ডে দ্বিতীয় স্থানেই থাকতে হল বাংলাদেশি অলরাউন্ডারকে।

ধোনির বিশ্বরেকর্ড ভাঙা হল না সাকিবের

Advertisment

ভারতের কিংবদন্তি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ধোনি টানা ৮৫টি টি-টোয়েন্টি ইনিংসে এলবিডব্লিউ হননি। সাকিবের ক্ষেত্রে সংখ্যাটি ৮২, ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। সোমবার (৯ আগস্ট) অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫ম টি-টোয়েন্টির আগে কখনই, অর্থাৎ টানা ৮২ ম্যাচে সাকিব এলবিডব্লিউ হননি।

ধারাভাষ্যকাররা সাকিবের এই কীর্তির কথা বলার একটু পরই অবশ্য আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম এলবিডব্লিউর স্বাদ পান সাকিব। অ্যাডাম জাম্পার ঘূর্ণিতে টাইমিংয়ে গড়বড় হলে সাকিব এলবিডব্লিউ হন ১১ রান করে। ফলে ধোনির রেকর্ড আর ভাঙা হল না তার। ধোনি অবসর নিয়েছেন অনেক দিন হল। সাকিবের সামনে ছিল ভারতের অন্যতম সেরা অধিনায়কের বিশ্বরেকর্ড ভাঙার সুবর্ণ সুযোগ।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে টানা এলবিডব্লিউ এড়ানোর কীর্তিতে ধোনি-সাকিবের পর আছেন কুমার সাঙ্গাকারা। শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং কিংবদন্তি টানা ৫৩টি টি-টোয়েন্টি ইনিংসে এলবিডব্লিউ না হওয়ার রেকর্ড গড়েন। চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছেন অ্যালবি মরকেল ও ক্রিস জর্ডান।

একনজরে দেখে নিন টানা এলবিডব্লিউ না হওয়া ইনিংস অনুযায়ী ক্রিকেটারদের তালিকা

১. মহেন্দ্র সিং ধোনি – ৫৮ ইনিংস
২. সাকিব আল হাসান – ৮২ ইনিংস
৩. কুমার সাঙ্গাকারা – ৫৩ ইনিংস
৪. অ্যালবি মরকেল – ৩৮ ইনিংস
৫. ক্রিস জর্ডান – ৩৮ ইনিংস
৬. স্টিভ স্মিথ – ৩৭ ইনিংস
৭. মিচেল স্যান্টনার – ৩৭ ইনিংস
৮. ডেভিড হাসি – ৩৬ ইনিংস
৯. করিম সাদিক – ৩৬ ইনিংস
১০. ম্যাট ক্রস – ৩৫ ইনিংস

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।