নতুন মেয়াদে ‘৩’ বিষয়কে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাপনের

0
761

নতুন করে আবারও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন। বেশ কিছু সফলতার মুখ দেখা জনপ্রিয় এই ক্রিকেট সংগঠক এবার তিনটি বিষয়কে বোর্ডের আগামী কার্যক্রম হিসেবে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছেন।

নতুন মেয়াদে '৩' বিষয়কে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাপনের
চতুর্থবারের মত সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর শুভেচ্ছায় সিক্ত পাপন।

চতুর্থবারের মত বিসিবি সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর পাপন জানান, প্রস্তাবিত শেখ হাসিনা স্টেডিয়ামের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করা, বোর্ডের কিছু সংবিধান সংশোধন করা এবং আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা প্রতিষ্ঠিত করা বিসিবির এবারের পর্ষদের তিন মূল লক্ষ্য।

Advertisment

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি (এককভাবে) ও বিশ্বকাপের মত বৈশ্বিক আসর (যৌথভাবে) আয়োজনের যোগ্যতার জন্য পূর্বাচলের শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম তৈরি করা অত্যন্ত জরুরী উল্লেখ করে পাপন বলেন, ‘তিনটি মূল কাজ আমরা ভাগ করেছি। একটি হল শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম যত দ্রুত সম্ভব চালু করা। বৈশ্বিক আসরে অংশগ্রহণের কথা যে বলেছি, ওখানে এই স্টেডিয়াম দেখানো আছে। তাই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এর নির্মাণকাজ সম্পন্ন করতে হবে। এই স্টেডিয়াম থাকতে হবে, নাহলে আয়োজন স্বত্ব পাব না। এজন্য এটা প্রথম তিন মূল লক্ষ্যের একটা।’

বিসিবির নির্বাচনে ভোট দিতে পারেন কাউন্সিলররা। কাউন্সিলর তথা ভোটার তালিকায় কিছু পরিবর্তন ও সংযোজন-বিয়োজন চান পাপন। এছাড়া সংবিধান পরিবর্তনে নিজের ভাবনার পাশাপাশি পরিচালকদের ভাবনাকেও এক্ষেত্রে গুরুত্ব দেওয়া হবে বলে জানান বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয়ত, সংবিধান নিয়ে কাজ করতে হবে। কিছু পরিবর্তন আনতে হবে। পরবর্তী বোর্ড সভায় সংবিধানের কী কী পরিবর্তন আনা যায় তা জানাতে বলেছি পরিচালকদের। আমার তো কিছু ভাবনা আছেই।

‘এতগুলো ক্লাব, অথচ ক্লাবগুলোর ভোট নেই। এমন সব ভোটারের নাম দেখি, ক্রিকেটের সাথে যাদের কোনো সম্পর্কই নেই। আমি অন্তত তাদের কোনো ভূমিকা দেখিনি। এরকম বহু আছে। এখানে একটা পরিবর্তন দরকার।’

আরও পড়ুন : ওয়ানডেতে ‘৫’ নম্বর দল হওয়ার লক্ষ্য পাপনের

আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা নিয়ে বিসিবির পরিকল্পনা অনেকদিন ধরেই। দেশব্যাপী ক্রিকেটকে আরও ছড়িয়ে দিতে ও তৃনমূলের ক্রিকেটারদের সহায়তা করতে এবার তা বাস্তবায়নের পথে বিসিবি।

বিসিবি সভাপতির ভাষায়, ‘তৃতীয়ত, আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা নিয়ে সাংঘর্ষিক ধারায় পরিবর্তন আনা। এটা করতে গিয়েই অবকাঠামো নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে। ইতোমধ্যে দুই জায়গায় ক্রিকেট একাডেমি হচ্ছে, এক জায়গায় হয়েও গেছে। আর কোথায় করা যায় সেটা জানতে চেয়েছি।’

নতুন মেয়াদে '৩' বিষয়কে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাপনের
চতুর্থবারের মত সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর শুভেচ্ছায় সিক্ত পাপন।

বয়সভিত্তিক, ব্যাটিং ও বোলিংয়ের জন্য আলাদা ক্রিকেট একাডেমি করার ভাবনা আছে তার। সেসব একাডেমিতে থাকবে বিশেষ সুবিধা, জানান পাপন, ‘বয়সভিত্তিকের জন্য আমরা আলাদা একটি একাডেমি চাই। আমার চিন্তাটা এরকম- চট্টগ্রামে হবে, সিলেটে আছে, খুলনায় হবে। আমরা তো সারা দেশে ৮-১০টি একাডেমি করছি। ওখান থেকে অন্তত তিনটি নির্ধারিত থাকবে।’

বিশেষায়িত একাডেমিতে থাকবে সমৃদ্ধ কোচিং প্যানেল, ‘ব্যাটিংয়ের জন্য একটা, ফাস্ট বোলারদের জন্য একটা, স্পিনারদের জন্য একটা। ঐ জায়গায় দেশি-বিদেশি কোচিং স্টাফও থাকবে। এটা জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের জন্য না, তবে কারও প্রয়োজন হলে যেতে পারে।’

এছাড়া সারা দেশে শুধু ক্রিকেটের জন্য কিছু মাঠ তৈরির পুরনো পরিকল্পনাও এবার বাস্তবায়ন করতে চান বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘আমাদের সারা দেশে অন্তত ৮-১০টি মাঠ দরকার যেখানে সারা বছর খেলা চালাতে পারি। লিগগুলো করতে গিয়ে দেখেছি, মানুষ আরও বেশি খেলতে চায় কিন্তু জায়গা নেই। খালি মাঠে খেলা যায় না। পিচ লাগে, ব্যবস্থাপনার প্রয়োজন আছে। স্টেডিয়াম না, শুধু মাঠ। একটা বাউন্ডারি দেয়াল থাকবে, পিচ থাকবে এবং শুধু ড্রেসিংরুম। অন্য কোনো কিছুর দরকার নেই। সেই সাথে অবকাঠামোগত উন্নয়ন করতে হবে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।