নাসিরের শটে দাঁত ভাঙে মেথের, রান নিতে চাননি রিয়াদ

২০১১ সালের জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় নাসির হোসেনের। অভিষেক সিরিজের অর্ধশতক করেন, প্রতিপক্ষের দাঁত ভাঙে তার শটে। নাসিরের একটা জিম্বাবুয়ের পেসার কীগান মেথের দাঁত ভেঙে যাওয়ার পর তখন কী ভাবছিলেন তিনি তা জানিয়েছেন বিডিক্রিকটাইমের  ঈদ আয়োজনের বিশেষ আড্ডায়।

নাসিরের শটে দাঁত ভাঙে মেথের, রান নিতে চাননি রিয়াদ
মাঠেই শুয়ে পড়েন আঘাতপ্রাপ্ত কীগান মেথ।

 

৫ ম্যাচের সিরিজের শেষ ম্যাচটাতেই ওই সিরিজে প্রথমবারের মতো মাঠে নেমেছিলেন মেথ। তার এক ম্যাচ আগেই অভিষেক হয় নাসিরের। তখন সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা নাসির একটা ফুলটস বল স্ট্রেইট শট খেলতেই সেটা যেয়ে সরাসরি লাগে বোলারের মুখে। সাথে সাথে রক্তে ভরে যায় তার মুখ, পড়ে গিয়েছিল দাঁত। নাসির জানিয়েছেন, সেদিন ওখানেই ৩টা দাঁত হারায় মেথ।

Also Read - নাসিরের চোখে হাথুরুসিংহে 'বদমেজাজি কোচ'







ম্যাচ শেষের দিকে ছিল তাই স্বাভাবিকভাবেই বলে আঘাত করেই রানের জন্য দৌঁড়েছিলেন নাসির। দ্বিতীয় রান নেয়ার জন্যও ছুটতে চাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু তাকে থামিয়ে দেন অপরপ্রান্তে থাকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সেই বলে আর পরে রান নেয়া হয়নি।

সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করে নাসির বলেন, ‘ওটা ওভারের শেষ বল ছিল, লো ফুলটস বল ছিল। আমি চেষ্টা করছিলাম মারার জন্য। বলটা সোজা যেয়ে ওর দাঁতে লাগে। আমি দেখেছিলাম, ৩টা পড়েছিল ওই জায়গাটায়। তখন আমি প্রথম রান নিয়েছি আর রিয়াদ ভাই ছিল নন-স্ট্রাইকে। তখন রিয়াদ ভাইকে বলছি, ভাই দৌঁড়ান, দৌঁড়ান। তখন রিয়াদ ভাই আমাকে বলছে, দাঁড়া মানুষ মারা যাচ্ছে! পরে আর রান নিইনি।’






নাসির জানান, পরে জিম্বাবুয়ের ড্রেসিংরুমে যেয়ে মেথের সাথে দেখা করে আসেন তিনি। এছাড়া ফিল্ডিংয়ের সময়ও এই জিম্বাবুইয়ান পেসারের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিয়েছিলেন তিনি।

নাসিরের ভাষায়, ‘খারাপ লাগছিল। পরে ওর সাথে ড্রেসিংরুমে যেয়ে দেখা করেছি। কোনো খেলোয়াড় চোট পেলে এটা অবশ্যই খুব দুঃখজনক। ফিল্ডিংয়ের সময়ও আমি দুই-একবার জিজ্ঞেস করেছি কী অবস্থা ও কেমন আছে। খবর পেয়েছিলাম সে ভালো আছে।’

লাইভ আড্ডাটি দেখুন এখানে-

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।