নিউজিল্যান্ডের দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড এখন গ্র্যান্ডহোমের

0
2284

মারমুখো ব্যাটিংয়ের কারণে খ্যাতি আছে তার। টি-২০’তে তো বটেই, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের স্ট্রাইক রেট একশরও উপরে। এবার টেস্ট ক্রিকেটও দেখল তার মারকুটে ব্যাটিং।

নিউজিল্যান্ডের দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড এখন গ্র্যান্ডহোমের

শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) গ্র্যান্ডহোমের ঝড়ো ইনিংসে হয়ে গেছে একটি রেকর্ডও। নিউজিল্যান্ডের হয়ে দ্রুততম ফিফটি এখন এই অলরাউন্ডারের।

Advertisment

নিজের ১৫তম টেস্ট ম্যাচের প্রথম ইনিংসে গ্র্যান্ডহোম যখন ব্যাট হাতে নেমেছেন, ৫৩৫ রানের লিড নিয়ে দল তখন বেশ স্বস্তিতে। হেনরি নিকোলাসের দেড়শ রানের অপেক্ষায় তখন ক্রাইস্টচার্চের গ্যালারি উন্মুখ। এমন সময়ে কিউইদের দুর্দান্ত ক্রিকেটের উদযাপনেই যেন যোগ দিলেন গ্র্যান্ডহোম। একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে হাঁকাতে তুলে নিলেন অর্ধ-শতক, যা টেস্টে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সবচেয়ে দ্রুত।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে ব্যাট চালাতে থাকা গ্র্যান্ডহোম লঙ্কান বোলারদের ‘পিটিয়ে’ মাত্র ২৮ বলে ৫০ রান পূর্ণ করেন। নিকোলাসের সাথে তার পার্টনারশিপের অর্ধ-শতও পূরণ করেন মাত্র ২৮ বলে। ২৮ বলে ক্যারিয়ারের চতুর্থ ফিফটি তুলে নিয়ে গ্র্যান্ডহোম ভেঙেছেন সতীর্থ টিম সাউদির রেকর্ড। ২৯ বলে ফিফটি করে এতদিন নিউজিল্যান্ডের হয়ে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ডটি নিজের করে রেখেছিলেন এই পেসার।

হেনরির দ্রুততম ফিফটি অর্জনের ইনিংসে একটি দলীয় রেকর্ড গড়েছে নিউজিল্যান্ড। কিউইদের টেস্ট ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয়বারের মত ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম ছয় ব্যাটসম্যানই অন্তত ৪০ রান করেছেন। এর আগে এমনটি দেখা গিয়েছিল ১৯৫৪ সালে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেবার প্রথম এবং এবারের আগে শেষবার কিউইদের ব্যাটিং লাইনআপের ছয় ব্যাটসম্যানই ৪০ বা তার বেশি রান করেছিলেন। ৬৩ বছর পর আবারও সেই কীর্তি গড়ে নিউজিল্যান্ড দারুণ উপলক্ষ্য এনে দিয়েছে দলটির সমর্থকদের।

উল্লেখ্য, ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে জয়ের জন্য সফরকারী শ্রীলঙ্কাকে ৬৬০ রানের প্রায় অবিশ্বাস্য লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দল। তৃতীয় দিন শেষে লক্ষ্যে ছোটা শ্রীলঙ্কা মাঠ ছেড়েছে ২ উইকেটে ২৪ রান নিয়ে।

আরও পড়ুন: বুমরাহর ‘ডানহাতের খেলে’ ভাঙল ৩৯ বছরের রেকর্ড