নিজের ভুল স্বীকার করলেন সাকিব

0
887

চট্টগ্রাম টেস্টের পঞ্চম দিনের বৃষ্টিটা যেন আর্শিবাদ হয়ে এসেছিল স্বাগতিক বাংলাদেশের জন্য। বৃষ্টি থামার পর হার এড়াতে খেলতে হতো মোটে ৭০ মিনিট, হাতে চার উইকেট। তবে গোড়াতেই গলদ করে বসলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নিজেই। মাঠে নেমে শুরুর বলে নিজের উইকেটটা রীতিমত গিফট করে আসলেন প্রতিপক্ষকে। ম্যাচ হারের পর নিজেই কাঠগড়ায় তুললেন নিজেকে। স্বীকার করে নিলেল দোষ।

Advertisment

৭০ মিনিটে খেলতে হবে ১১১ বল। চ্যালেঞ্জ থাকলেও অসম্ভব ছিলো না স্বাগতিক বাংলাদেশের জন্য। তবে উইকেটে এসে যেন ব্যস্ততাটা একটু বেশি বেড়ে গেল স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের, একের পর এক ফিরলেন প্যাভিলিয়নের দিকে। যার শুরুটা করলেন দলপতি সাকিব আল হাসান নিজেই। জাহির খানের করা বলটি ছিল অফ স্টাম্পের অনেক বাইরে। ছেড়ে দিলেই পারতেন। কিন্তু গেলেন কাট করতে। তাতেই ডেকে আনলেন বিপদ।

ম্যাচ হারের কারণ হিসাবে তাই নিজেকেই কাঠগড়ায় তুলছেন সাকিব। সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান, ‘মেনে নেওয়া আসলেই কষ্টকর। যেহেতু হাতে চার উইকেট ছিলো, এক ঘণ্টা ১০ মিনিট খেলতে হতো। আমি আমারটা বলতে পারি, বাকিদেরটা আমার পক্ষে বলা কষ্টকর। যেহেতু আমি প্রথম বলে (বৃষ্টি থামার পর তৃতীয় সেশনের শুরুতে) আউট হয়েছি তাই কাজটা টিমের জন্য আরও কষ্টের হয়ে গেছে। তো দায়িত্ব অনেকটা আমার উপরই পড়ে।’

‘আমি কাট শটটা না মারলেও অবশ্য হতো। না মারলেও হতো মানে…শটটা খেলে ফেলছি, যেটাতে আসলে টিম অনেক বেশি প্রেশারে পড়ে গেছে।’ বলে যোগ করেন তিনি।

নিজের দায়িত্বটা জুতসইভাবে পালন করতে পারেননি বলে আক্ষেপের অন্ত নেই সাকিবের, ‘যেহেতু আমি উইকেটে ছিলাম, আমারই আসল দায়িত্বটা ছিলো মেন রোলটা প্লে কারার। সেইটা যদি আমি ভালোভাবে করতে পারতাম তাহলে হয়তোবা ড্রেসিংরুম অনেক ভালো অনুভব করতো এবং আমরা ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারার বা ড্র করার সম্ভাবনা ছিলো। যেহেতু আমি প্রথম বলেই আউট হয়ে গেছি, কাজটা আসলে টিমের জন্য অনেক কঠিন হয়ে গিয়েছে।’