Scores

নিজে সন্তুষ্ট না হলেই দায়িত্ব ছাড়বেন তামিম!

আগেও বেশ কয়েকটা ম্যাচে জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তামিম ইকবাল। অবশ্য সেগুলো ছিল হঠাৎ পাওয়া অস্থায়ী দায়িত্ব এবং ফলও তার পক্ষে কথা বলেনি। এবারে লম্বা সময়ের জন্য দায়িত্ব পেয়ে জানালেন আক্রমণাত্মক অধিনায়কত্বই তার দৃষ্টিতে। যদি দলকে নেতৃত্ব দেয়া নিয়ে নিজের সামর্থ্য যথেষ্ট মনে না করেন তাহলে কেউ প্রশ্ন তোলার আগে তিনি নিজেই বলবেন সে কথা।

নিজে সন্তুষ্ট না হলেই দায়িত্ব ছাড়বেন তামিম!

মাশরাফির উত্তরসূরি হিসাবে দায়িত্বে আসছেন তামিম। ওয়ানডে দলকে মাশরাফি নিয়ে গিয়েছেন বেশ উচ্চ মর্যাদার একটা স্থানে। সেটা ধরে রেখে আরও এগিয়ে যাওয়ায় হবে তামিমের লক্ষ্য। এক্ষেত্রে আকমণাত্মক অধিনায়কত্বকেই বেছে নিচ্ছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

Also Read - "দল ভালো না করলে ২০টা গুণও সামনে আসবে না"


নিজের অধিনায়কত্বের বড় সমালোচকও তিনিই হবেন বলে জানিয়েছেন, ‘অধিনায়কত্বে আমার দর্শন হল আক্রমণাত্মক। আমি আক্রমণাত্মক থাকতেই পছন্দ করি। পরিস্থিতি বুঝতে হবে, শক্তিমত্তা বুঝতে হবে। সবকিছু বুঝেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এটাই বলতে পারি আপাতত- এক-দুই সিরিজ না দেখে একটু ধৈর্য রাখুন। অধৈর্য হবেন না। যদি ছয় মাস, এক বছর, দেড় বছর যায় আর মনে হয় দলের প্রতি যথেষ্ট করতে পারছি না, আমিই প্রথম ব্যক্তি হব যে বলবে আমি পারছি না।’

আগে ফলাফল বিপরীতে গেলে শুধু ব্যাটিং নিয়ে সমালোচনা হতো; আর এখন সাথে যুক্ত হবে অধিনায়কত্ব নিয়েও সমালোচনা। তবে এসব নিয়ে দুশ্চিন্তা করছেন না তামিম। নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারফরম্যান্স করেই দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়ার মন্ত্র তার।

তামিম বলেন, ‘সমালোচনা হবে। ব্যাটিং নিয়ে হয়েছে। এখন হলে হবে দুইটা জিনিস নিয়ে। ব্যাটিংয়ে সমালোচনা হতে পারে, সমস্যা নেই। কিন্তু অধিনায়কত্বে সময় দিতে হবে। এমন নয় বছরের পর বছর অধিনায়কত্ব করছি। এটা নতুন চ্যালেঞ্জ। আমাকে সময় দেওয়া উচিৎ। পারফরম্যান্স দিয়েই দলকে নেতৃত্ব দেওয়া সবচেয়ে সহজ। চেষ্টা করব। ফলাফল অনেক সময় হাতে থাকে না।’

তামিম মনে করছেন অধিনায়কত্বের শুরুতে যত তাড়াতাড়ি প্রথম জয়ের দেখা পাবেন সেটা তার ও দলের জন্য ভালো হবে। খুব তাড়াতাড়ি একটা পেলে তার কাজটা করাটা সহজ হয়ে যাবে। এইজন্য দীর্ঘ সময় পেয়ে খুশি তিনি। পাকিস্তান সফর হবে কিনা তা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও সুযোগ মিললে পাকিস্তান থেকেই নিজের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করছেন তিনি।

তামিমের ভাষায়, ‘২০১৫ সালের দল থেকে এখনকার দল ভিন্ন। কিছু গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় নেই। ফর্মে উত্থানপতন আছে। দলে নতুন আছে ৪-৫ জন। আমাদের ভালো দল হতে হলে ৫-৬ জনকে ভালো করতে হয়। একটা জয় খুব গুরুত্বপূর্ণ। যত তাড়াতাড়ি বড় জয় পাব তত তাড়াতাড়ি পুরো দলের জন্য ভালো। দীর্ঘ সময় দায়িত্ব দিয়েছে বোর্ড, এটা ভালো। পাকিস্তানে গেলে ভালো করতে চাইব।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বাংলা বলে স্টোকসদের ক্ষেপিয়ে দিতেন তামিম

সাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ তামিম

মুশফিক নাকি মাশরাফি- তামিমকে রিয়াদের প্রশ্ন

মাশরাফির ক্যারিয়ারের সবচেয়ে আবেগময় ‘২’ মুহূর্ত

বড় ভাইয়ের অনুপ্রেরণায় ক্রিকেটার হয়ে উঠেন মাহমুদউল্লাহ