Scores

‘নিদাহাস ট্রফি আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে’

একটা ট্রফির ফাইনাল বিজয় শঙ্করের জীবন অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছিল। যার পরে তিনি প্রতিজ্ঞা করেছিলেন, কোনও কিছুতেই জীবনকে আর প্রভাবিত হতে দেবেন না। মঙ্গলবার ভারতকে ম্যাচ জিতিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজয় শঙ্কর জানিয়েছেন তার কিছু অজানা কথা।

 

নিদাহাস ট্রফি শিক্ষা দিয়েছে: শঙ্কর

 

Also Read - অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্ব নিচ্ছেন প্রোটিয়া ক্রিকেটার!


নিদাহাস ট্রফি নিয়ে বিজয় শঙ্কর বলেন, ‘‘নিদাহাস ট্রফি আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। আমি শিখেছি, কী ভাবে আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। বাইরের কোনও ব্যাপারকে আমার জীবনে আর প্রভাব ফেলতে দিতে চাই না। শিখেছি, যে কোনও পরিস্থিতিতে কী ভাবে শান্ত থাকা যায়। জীবনের ওঠা-পড়া নিয়ে মাথা ঘামানো ছেড়ে দিয়েছি।’’

শেষ ওভারে যখন অধিনায়ক আপনার হাতে বল তুলে দেন, তখন কী মনে হচ্ছিল? এমন একটি প্রশ্নের জবাবে বিজয়ের বলেন, ‘‘আমি মানসিক ভাবে তৈরি ছিলাম চ্যালেঞ্জ নিতে। ৪৩-৪৪ ওভার থেকেই নিজেকে বলছিলাম, আমাকে যে কোনও সময় বল করতে হবে। তাই মানসিক প্রস্তুতিটা ছিল। ধরে নিয়েছিলাম, শেষ ওভারে ১২-১৫ রান হাতে নিয়ে বল করতে হবে।’’

এদিকে শেষ ওভার করার আগে তিনি যে বুমরার পরামর্শও পেয়েছিলেন সেই বিষয়টি নিয়েও তিনি কথা বলেছেন, ‘‘বুমরা আমাকে এসে বলে, রিভার্স সুইং হচ্ছে। আমি তাই চেষ্টা করেছিলাম, স্টাম্প টু স্টাম্প বল করতে। আমি কোনও রকম চাপে ছিলাম না। ওদের আট উইকেট পড়ে গিয়েছিল। তাই জানতাম, আমাদেরও জেতার সুযোগ আছে।’’

আসন্ন বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে দেখা হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই সিরিজকে। তাই এই সিরিজকে ভারতীয় ক্রিকেটারেরা গুরুত্বের সাথেই দেখছেন।

এদিকে নাগপুরে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পাওয়ার পরে উচ্ছ্বসিত ভারতীয় ক্রিকেটারেরা গভীর রাতে একের পর এক টুইট করছেন। কোহালি লিখেছেন, ‘‘দুর্দান্ত পারফরম্যান্স। অসাধারণ টিমওয়ার্ক।’’ যশপ্রীত বুমরার টুইট, ‘‘বিশাল একটা জয় পেল দল। এই জয়ের অংশ হতে পেরে আমি ভীষণ উত্তেজিত।’’

তবে এখনি আবেগে ভাসতে রাজি নন বিজয় শঙ্কর, এমন্টাই জানিয়েছেন তিনি।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলেন বিজয় শঙ্কর

কতটা গুরুতর বিজয় শঙ্করের চোট

গুরুতর নয় বিজয় শঙ্করের চোট

ইনজুরিতে বিজয় শঙ্কর

বিশ্বকাপ স্কোয়াডের পাঁচ চমকপ্রদ ক্রিকেটার