Scores

নিরবে-নিভৃতে হয়ে গেল বিসিএলের বিপ টেস্ট

মিরপুরে আজ বসেছিল তারার মেলা। সকাল থেকেই শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ইনডোরে জড়ো হতে থাকেন ক্রিকেটাররা। উদ্দেশ্য আসন্ন বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) জন্য নিজেদেরকে ফিট প্রমাণ করা।

নিরবে-নিভৃতে হয়ে গেল বিসিএলের বিপ টেস্ট

রোববার সকাল ১০টায় শুরু হয় ক্রিকেটারদের বিপ টেস্ট। যেখানে অংশ নেন ঢাকার বাইরে অবস্থান করা ক্রিকেটাররাও। মূলত ফ্র‍্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট টুর্নামেন্ট বিসিএলে খেলার সুযোগ পেতেই নিজেদের ফিটনেসের পরীক্ষা দেন অংশগ্রহণ করা খেলোয়াড়েরা। ৩১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এই টুর্নামেন্টটির অষ্টম সংস্করণ।

Also Read - একাধিক পরিবর্তন আসছে বাংলাদেশ দলে!


বিপ টেস্ট চলাকালীন ইনডোরে হঠাৎই শোনা গেল চিৎকার-চেঁচামেচি। রুয়েল-রুয়েল ধ্বনিতে মুখরিত গোটা ইনডোর। এর কারণও আছে বৈকি, আজকের বিপ টেস্টে উইকেটরক্ষক মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনের সাথে সমান ১৩.২ স্কোর করে যৌথভাবে শীর্ষ স্কোরার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের রুয়েল মিয়া। অসুস্থতা কাটিয়ে ফেরা মোশাররফ হোসেন রুবেল করেছেন সর্বনিম্ন ৭.৬ স্কোর।

এবারের বিপ টেস্টে পাশ মার্কের জন্য ১১ স্কোর বেঁধে দিয়েছিল বোর্ড। তবে টেস্টে অংশ নেওয়া ১৪২ ক্রিকেটারের মধ্যে ৮০ জনের বেশি পাশ মার্ক তুলতে ব্যর্থ হয়েছেন। এনিয়ে অবশ্য অভিযোগের কমতি ছিল না ক্রিকেটারদের। সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে অংশ নেওয়া এক ক্রিকেটার বিপ টেস্টে ১২ এর উপর স্কোর করলেও নিজের উপর খুব বেশি খুশি নন তিনি। জানালেন বিপিএলে পাওয়া চোটের কারণে সেরা স্কোর গড়া হলো না তার।

আরেক ক্রিকেটার ইনডোর থেকে বের হলেন বেশ হতাশা নিয়েই। পাশ মার্ক ১১ থাকলেও ১০.৬ এর উপর তুলতে পারেননি তিনি। জানালেন, সবাইতো আর বিপিএলে সুযোগ পায় না! এদিকে বিপ টেস্টের দুদিন আগে হঠাৎ ফোন দিয়ে জানানো হলো এই টেস্টের কথা। যার জন্য একেবারেই প্রস্তুতি ছিল না।

তবে জানা গেছে যারা বিপ টেস্টে উৎরাতে ব্যর্থ হয়েছেন, তারা সুযোগ পাবেন নিজেদেরকে ফিট প্রমাণের। একই সাথে জানানো হয়েছে, শুরুতে প্রতি টুর্নামেন্টের আগে বিপ টেস্ট নেওয়ার কথা থাকলেও বছরে দুইটার বেশি ফিটনেস টেস্টের প্রয়োজন পড়বে না ক্রিকেটারদের। বছরের শুরুতে এবং মাঝে দেওয়া দুই টেস্টে পাশ করতে পারলেই বছরজুড়ে চলা সকল টুর্নামেন্টে অনায়াসেই খেলতে পারবেন ক্রিকেটাররা।

প্রসঙ্গত, আগামীকাল (২৭ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় শুরু হবে বিসিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। মিরপুরে হতে যাওয়া এই ড্রাফট থেক দল গুঁছিয়ে নেবে উত্তরাঞ্চল, দক্ষিণাঞ্চল, পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চল। প্রত্যেক ফ্র‍্যাঞ্চাইজিই আগের দল থেকে সর্বোচ্চ ৫ জন খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে পারবে। তবে চার আসর পর এবার আবার বিসিএল হবে সিঙ্গেল লিগ পদ্ধতিতে।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

আর্থিক দুরাবস্থায় ক্রিকেটাররা; ঘরোয়া ক্রিকেট চালুর দাবি

অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত জাতীয় লিগ

রংপুরকে ম্যাচ জিতিয়েই মাঠ ছাড়লেন নাসির

পাল্টাপাল্টি জবাবে ড্রয়ের পথে ঢাকা-সিলেট

মুগ্ধর পেস তোপে জয়ের সুবাস পাচ্ছে রংপুর