Scores

নির্বাচনী ইশতেহারে যা আছে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে

ঘনিয়ে আসছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে নিজেদের কার্যক্রম গোছানো শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলো। নির্বাচনকে সামনে রেখে ইশতেহারও ঘোষণা করা হয়ে গেছে। ক্রীড়াঙ্গনের তারকাদের অংশগ্রহণসহ নানা কারণে এবারের নির্বাচনে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে ক্রীড়া ক্ষেত্র।

নির্বাচনী ইশতেহারে যা আছে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে
বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও প্রার্থিতা করবেন আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে। ছবি: বিডিক্রিকটাইম

 

যদিও দেশের বড় দুই রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ইশতেহারে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে কথা রয়েছে অল্পই। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ক্রীড়াঙ্গন ও বিশেষ করে ক্রিকেট নিয়ে নির্দিষ্ট কিছু লক্ষ্য অর্জনের কথা বললেও বিএনপির ইশতেহারে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে প্রতিশ্রুতি রয়ে গেছে অস্পষ্টই।

মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে নিজ দলের ইশতেহার ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। ইশতেহারে বিগত দুই বছরে ক্রীড়াঙ্গনের উন্নতির দিকে দৃষ্টিপাত করে নতুন করে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

Also Read - ওয়েলিংটন টেস্ট: বৃষ্টির দাপটে ড্র-ই হল পরিণতি


আওয়ামী লীগের প্রতিশ্রুতিতে বলা হয়- ১. বিশ্ব ক্রিকেটে বর্তমানে বাংলাদেশের গৌরব জাগানো অবস্থান আরো সুদৃঢ় করার সাথে সাথে ফুটবল, হকিসহ অন্যান্য খেলা আন্তর্জাতিক মানে পৌঁছানোর জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছু করা হবে, ২. ক্রীড়া ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, প্রশিক্ষণ সুবিধা সম্প্রসারণে পরিকল্পিত উদ্যোগ নেওয়া হবে এবং ৩. প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ স্তর পর্যন্ত প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশু-কিশোর ও তরুণ-তরুণীদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য বিকাশে খেলাধুলা ও শরীর চর্চাকে শিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

একই দিনে নিজেদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের বড় দল বিএনপি। বিএনপির পক্ষে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ইশতেহারে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলা না হলেও সার্বিকভাবে ক্রীড়াঙ্গনে উন্নয়নের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। বিএনপির ইশতেহারে ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে বলা হয়- ১. আগামী ৫ বছরের মধ্যে খেলাধুলার কয়েকটি ক্ষেত্রে বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশ যাতে একটি গ্রহণযোগ্য স্থান করে নিতে পারে সে লক্ষ্যে পরিকল্পিত ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে এবং ২. খেলাধুলায় আন্তর্জাতিক মান অর্জনের জন্য প্রতি জেলায় একটি করে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর ক্রীড়া একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হবে।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর।

আরও পড়ুন: বিপিএলে খেলতে পারবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মাশরাফিকে মন্ত্রী করার দাবিতে মানববন্ধন

বিপুল ব্যবধানে জিতলেন নাজমুল হাসান পাপন

অনানুষ্ঠানিক ফল: ২ লাখ ৬৬ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী মাশরাফি

রেকর্ড ব্যবধানে জয়ের পথে মাশরাফি

‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’— ভোট দিয়ে সাকিব