নিশাকা ঝড়ে ব্যর্থ হল সাইফের শতক

শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের বিপক্ষে সিরিজ নিষ্পতির ম্যাচে বৃষ্টি আইনে ৭ উইকেটে ম্যাচ হেরে সিরিজ খোয়াল বাংলাদেশ। সাইফের শতকে স্বাগতিকরা সংগ্রহ করেছিল ২৬৯ রান। জবাবে পাধুন নিশাকার ঝড়ো শতকে ২৮ ওভারেই ১৯৯ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা।

২৭০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে পাধুন নিশাকার ব্যাটে ঝড়ো সূচনা পায় শ্রীলঙ্কা। দলীয় ৬৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় তারা। হাসিথা বয়াজোদাকে (১২) বোল্ড করেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। ৬৮ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেটটি শিকার করেন রবিউল হক। তবে তাতে রানের চাকা থামেনি লঙ্কানদের, বরং আরও দ্রুতগতিতে ছুটেছে!

Also Read - মালিঙ্গাকে অধিনায়ক করে লঙ্কানদের দল ঘোষণা


ঝড়ো ইনিংস খেলতে থাকা নিশাকার সাথে যোগ দেন মিনোদ ভানুকা। তিনিও এক দ্রুতগতির ইনিংস খেলে যান। ইয়াসিন আরাফাতের শিকার হওয়ার আগে করেন ৩২ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে ৫৫ রান। তিনি ফেরার পরপরই আঘাত হানে বৃষ্টি। আর বল মাঠে গড়াতে না পারলে বৃষ্টি আইনে ৭ উইকেটে জয়ী ঘোষণা করা হয় লঙ্কানদের।

নিশাকা ৭৮ বলে ১১৫ রান করে। তার ইনিংসে ছিল ৮টি চার ও ৫টি ছয়। ম্যাচ সেরা খেলোয়াড়ও নির্বাচিত হয়েছেন এই ওপেনার।

তার আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার নাইম শেখকে হারায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় উইকেটে নাজমুল হোসেন শান্ত ও সাইফ হাসান ৭৪ রান যোগ করে। শান্ত ৪৭ বলে ৩৯ রান করে ফিরলে ভেঙে যায় এই জুটি। এরপর দ্রুত বিদায় নেন ইয়াসির আলিও (৯)।

দুই উঠতি ক্রিকেটার সাইফ ও আফিফ হোসেন চতুর্থ উইকেটে ১২৫ রানের জুটি গড়েন। শতক করে বিদায় নেন সাইফ। কালানা পেরেরার শিকার হওয়ার আগে করেন ১১৭ রান। তার ১৩০ বলের ইনিংসটি সাজান ছিল ৪টি চার ও ৭টি ছয়ে।

অর্ধশত রান করে অপরাজিত থাকেন আফিফ। তার ব্যাট থেকে আসে ৭০ বলে ৬৮ রান। এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের ইনিংসে ছিল ৬টি চার ও ১টি ছয়। সাইফ ফেরার পরে তার যোগ দেয়া জাকির হাসানও (৯) বিদায় নেন দ্রুত। ১১ বলে অপরাজিত ১৩ রান করে আফিফের সাথে ইনিংস শেষ করেছেন ইয়াসিন আরাফাত।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটের বিনিময়ে ২৬৯ রান। লঙ্কানদের হয়ে ৩টি উইকেট শিকার করেন শিরান ফার্নান্দো ও ২টি উইকেট নেন জেহান দানিয়েল।

এই হারে ২-১ ব্যবধানে সিরিজে পরাজিত হলো স্বাগতিকরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-
বাংলাদেশ এইচপি: ৫০ ওভারে ২৬৯/৫
সাইফ ১১৭ (১৩০), নাইম ৬ (১২), শান্ত ৩৯ (৪৭), ইয়াসির ৯ (২৪), আফিফ ৬৮* (৭০), জাকির ৭ (৭), ইয়াসিন ১৩* (১১);
ফার্নান্দো ৩/৪৮, দানিয়েল ২/৪৮।

শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং: ২৮ ওভারে ১৯৯/৩
নিশাকা ১১৫* (৭৮), মিনোদ ৫৫ (৩২)
ইয়াসিন ১/২৯, বিপ্লব ১/৩২, রবিউল ১/৩৯

বৃষ্টি আইনে ৭ উইকেটে জয়ী শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন