নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেও পার পেয়ে গেলেন আমির

ক’রোনা সংক্রমণের ঝুঁকি মাথায় নিয়েই পুরোদমে শুরু হয়ে গেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। ইংল্যান্ডের আয়োজনে মাঠে গড়াচ্ছে একের পর এক সিরিজ। শুক্রবার (২৯ আগস্ট) শুরু হয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও সফরকারী পাকিস্তানের মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। উদ্বোধনী ম্যাচেই আইসিসির বেঁধে দেওয়া নিয়ম ভেঙেছেন মোহাম্মদ আমির।

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেও পার পেয়ে গেলেন আমির

Advertisment

ভাইরাস ছড়ানোর অন্যতম প্রধান একটি উপায় লালা বা থুতু। আইসিসি তাই বলে লালা বা থুতুর ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে। তবে পাকিস্তানি পেসার আমির সেই নিয়ম মানেননি। আইসিসির নির্দেশনা অমান্য করেই সিরিজের প্রথম ম্যাচে বলে থুতু ঘষেন তিনি।





আমিরের মত নিষিদ্ধ কাণ্ড করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সতর্কবার্তা শুনতে হয়েছিল ইংলিশ ক্রিকেটার ডম সিবলিকে। তবে আমির কোনো সতর্কবার্তা ছাড়াই পার পেয়ে গেছেন। সম্ভবত ঘটনার সময় বিষয়টি আম্পায়ারদের দৃষ্টিও এড়িয়ে গেছে।

ক’রোনার কারণে আইসিসির নতুন নিয়ম অনুযায়ী, বোলিং দল বলের চাকচিক্য বাড়িয়ে সুবিধা আদায় করতে লালা বা থুতু ব্যবহার করতে পারবে না। তাও অভ্যাসবশত কেউ থুতু ব্যবহার করে ফেললে আম্পায়াররা দুইবার সতর্ক করবেন এবং তৃতীয় দফায় ৫ রান পেনাল্টি হবে। কিন্তু আমির বা পাকিস্তানকে আম্পায়াররা সতর্কও করেননি। আমিরের থুতু ঘষার ছবি ছড়িয়ে পড়লে এ নিয়ে ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের মধ্যে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।






ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ডম সিবলি ভুলবশত বলে থুতু লাগানোর পর আম্পায়াররা জীবাণুনাশক দিয়ে বলটিকে জীবাণুমুক্ত করেছিলেন। আমির একাধিকবার বলে থুতু ঘষলেও তার ক্ষেত্রে এমনটিও দেখা যায়নি। ক’রোনা সংক্রমণ রোধের পেছনে ক্রিকেট ম্যাচে আম্পায়ারদের ভূমিকা কতটা কার্যকরী, সেই প্রশ্নও উঠছে। অনেকেই টুইটারে নিয়েছেন সমালোচকের ভূমিকা।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।