নিষ্প্রাণ ম্যাচে আলো ছড়াল আবিদের রেকর্ড

0
486

বৃষ্টির দাপটে ড্রই ছিল রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের পরিণতি। তবু ম্যাড়মেড়ে ম্যাচকে যতটা রাঙানো যায়- আবিদ আলী ও বাবর আজম যেন সেই দায়িত্বই নিয়েছিলেন।

নিষ্প্রাণ ম্যাচে আলো ছড়াল আবিদের রেকর্ড

Advertisment

টেস্টের চতুর্থ দিন খেলাই হয়নি। এর আগের তিনদিন বৃষ্টির ফাঁকে ফাঁকে যতক্ষণ খেলা হয়েছে, তাতে ব্যাটিং করেছেন শুধু লঙ্কানরাই। শেষ দিন তাই ব্যাটিং করলেন স্বাগতিকরা। এই ম্যাচ তো নিষ্প্রাণই থাকল, অন্তত দ্বিতীয় টেস্টের প্রস্তুতি হোক!





সেই ‘প্রস্তুতি’তে আলো ছড়িয়েছেন অভিষিক্ত আবিদ আলী ও অভিজ্ঞ বাবর আজম। আবিদ যেন একটু বেশিই আলো ছড়ালেন। এই টেস্ট দিয়ে সাদা পোশাকের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পাকিস্তানে ফিরেছে দীর্ঘ ১০ বছর পর। আবিদের এটি অভিষেক টেস্টও। স্মৃতিবহুল ম্যাচটাকে তিনি পাঠিয়ে দিলেন রেকর্ড বইয়েও।

৩২ বছর বয়সী ওপেনিং ব্যাটসম্যানের ‘বুড়ো হাড়’ তুলে নেয় শতক। ২০১ বলের মোকাবেলায় ১০৯ রান করে অপরাজিত থাকেন আবিদ। ইনিংসকে সমৃদ্ধ করেছেন ১১টি ছক্কায়।






নতুনের আলো ছড়ানোর দিনে দলের সেরা ব্যাটসম্যান বাবর কেন নিস্প্রভ থাকবেন? শাণ মাসুদ শূন্য ও অধিনায়ক আজহার আলী ৩৬ রানে বিদায় নেওয়ার পর আবিদের সঙ্গতে বাবরও তুলে নেন শতক। ১২৮ বলে ১০২ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি, যে ইনিংসে ছিল ১৪টি ছক্কা।

শতক দিয়ে আবিদ যে রেকর্ড গড়েছেন, তা বেশ বিরল। ওয়ানডে ও টেস্ট দুই ফরম্যাটের অভিষেক ইনিংসেই শতক হাঁকানো একমাত্র ক্রিকেটার তিনি। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে শতক হাঁকিয়েছিলেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, তার ১০২ রানের পুঁজিতে লঙ্কানরা ইনিংস ঘোষণা করে ৩০৮ রানে। কিন্তু আবিদের শতকে বাবর তো বটেই, আলোচনার টেবিলে পিছিয়ে গেছেন ধনঞ্জয়াও! সেই মূল্যায়নও পেয়েছেন আবিদ ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হয়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস- ৩০৮/৬ (ডি)
ধনঞ্জয়া ১০২*, করুনারত্নে ৫৯
শাহীন ৫৮/২, নাসিম ৯২/২

পাকিস্তান ১ম ইনিংস- ২৫২/২
আবিদ ১০৯*, বাবর ১০২*
রাজিথা ৫/১, কুমারা ৪৬/১

ফল: ম্যাচ ড্র।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।