পরবর্তী চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি বাংলাদেশে?

0
3213

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) আয়োজিত সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট ক্রিকেট বিশ্বকাপ। এরপরেই আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। ক্রিকেট বিশ্বের সেরা ৮ দল এই ম র্যাদাপূর্ণ আসরে অংশ নেবার সুযোগ পায়। আইসিসি সূচি অনুযায়ী ২০২১ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসর বসার কথা ভারতে।  তবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সাথে কর সংক্রান্ত ঝামেলায় চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি সরিয়ে নেবার কথা ভাবছে আইসিসি। তেমনটা হলে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরবর্তী আসর বসতে পারে বাংলাদেশে!

Advertisment

২০১৬ সালে সর্বশেষ আইসিসি আয়োজিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসর বসেছিল ভারতের মাটিতে। সেই আসর থেকে  ২০-৩০ মিলিয়ন ডলার কম আয় হয়েছে আইসিসির। কেননা আইসিসির থেকে কর নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)।

এদিকে ২০২১ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর ২০২৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপও অনুষ্ঠিত হবার কথা ভারতের মাটিতে। এই দুই বড় ইভেন্টের করের ক্ষেত্রেও একই পরিকল্পনা ভারতের। দেশটির সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আইসিসিকে কর ছাড় দেবে না তারা। এমনটি হলে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতির মুখে পড়বে আইসিসি।

এতো বড় লোকসান দিয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে নারাজ আইসিসি। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুবাইয়ে বিসিসিআইয়ের সাথে এক বৈঠক শেষে এমনটিই জানানো হয়েছে। ২০২১ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ভারত থেকে সরিয়ে বাংলাদেশ কিংবা শ্রীলঙ্কায় আয়োজনের ভাবনায় আছে আইসিসি। তবে আয়োজক হিসেবে ২০১৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ভালো সুনাম অর্জন করেছিল বাংলাদেশ। তাই শ্রীলঙ্কার থেকে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

 

তবে এখনিই ভেন্যু নির্ধারণ হচ্ছে না। আইসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভিড রিচার্ডসন এবং অন্য কর্মকর্তাদের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সময় ঠিক রেখে বিকল্প ভেন্যু খুঁজতে বলা হয়েছে।  প্রাথমিকভাবে তারা নজরে রেখেছেন বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কাকে। তবে এখনি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না। কেননা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এখনোও বাকি আছে ৩ বছর। সবকিছু বিবেচনা করে এরপরেই সিদ্ধান্ত নিবে আইসিসি।

উল্লেখ্য, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সর্বশেষ আসর বসেছিল ২০১৭ সালে। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত সেই টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ।

[আরও পড়ুনঃ ধারাবাহিক ভালো করার ফলাফল পেয়েছেন আফিফ]