পরতে পরতে মিরাজের মাশরাফি-বন্দনা

0
1504

ম্যাচ জয়ে তার অবদান অনেক বেশি। ম্যাচ সেরার পুরষ্কারও পেয়েছেন। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের নায়ক হিসেবে সিরিজ জয়ের নায়ক বললেও তো ভুল হবে না। তবে মেহেদী হাসান মিরাজ নিজের সব কীর্তি বা অর্জনে কৃতিত্ব দিতে চাইলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকেই।

বাংলাদেশ বনাম উইন্ডিজ ওয়ানডে

পঞ্চপাণ্ডব ব্যতীত মিরাজই একমাত্র ক্রিকেটারযিনি সাম্প্রতিক সময়ে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলে যাচ্ছেন। দলের গুরুত্বপূর্ণ একজনহয়ে উঠেছেন ইতোমধ্যেই। সেই মিরাজ টস জেতা থেকে শুরু করে ম্যাচের শুরুতে বোলিং-প্রসঙ্গক্রমে টেনে আনলেন অধিনায়ককেই, ‘খুব ভালোলাগছে। টস অনেকগুরুত্বপূর্ণ ছিল। ভাগ্যপক্ষে ছিল, মাশরাফি ভাই টস জিতেছে। উইকেট একটু স্যাঁতসেঁতে ছিল- স্পিনাররা শুরুতে সহায়তা পাওয়ার মত। মাশরাফি ভাই খুব ভালো একটা কাজ করেছে- আমাকে একপাশ থেকে টানা বোলিং করিয়েছে। আটটা ওভারে দুটা ব্রেক থ্রু দিয়েছি। খুব ভালো লাগছে।’

Advertisment

‘শেষে যে দুইটা উইকেট পেয়েছিলাম- মাশরাফি ভাইর সাথে মুশফিক ভাই আলাপ করছিল যে এই মোমেন্টে হয়ত মিরাজ আসলে ভালো করবে।’– বলেন মিরাজ।

মিরাজ মনে করেন, ওয়ানডেতে রান আটকে রাখাই একজন বোলারের বড় দায়িত্ব। তার ভাষ্য, টেস্ট শুরু করেছিলাম যখন, আমি চেষ্টা করছিলাম কীভাবে টেস্টে ভালো খেলে ওয়ানডে খেলা যায়ওয়ানডেতে আমার ধারাবাহিকতা ছিল নাসর্বশেষ উইন্ডিজ সফর থেকে আমি ধারাবাহিকভাবে ওয়ানডে দলে খেলছিওয়ানডে দলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল রান আটকানোর মত বোলিং করারান আটকালে কিন্তু অধিনায়ক আমার উপর আস্থা রাখবেন।’

নিজের বোলিং উন্নতির পেছনেও মাশরাফি ও সেইসাথে মুশফিকের অবদান দেখছেন তরুণ ক্রিকেটার মিরাজ। তিনি বলেন, ‘উইন্ডিজ থেকেইযখন খেলি, মাশরাফি ভাই ও মুশফিক ভাই বলেছিল- ওয়ানডে ক্রিকেটে টাইট লেন্থে বল করাটাইম্পরট্যান্ট।আমি যদি টাইট লেন্থে বল করি, ইকোনমিঠিক থাকে তাহলে আরেক দিক থেকে চাপ পড়লে উইকেট পড়ার সুযোগ থাকে। টাইট বোলিং করার কারণেই হয়ত আজকে চারটাউইকেট পেয়েছি।তারা সবসময়ই বলেন, টাইট বোলিং করতেথাকলে এখন না হলেও একসময় তিনটা-চারটা-পাঁচটা উইকেট হয়ে যাবে।’

আরও পড়ুনবাংলাদেশের যত ওয়ানডে সিরিজ জয়