SCORE

পরবর্তী ৩ এশিয়া কাপের তারিখ চূড়ান্ত

চূড়ান্ত হয়েছে আগামী তিন এশিয়া কাপের তারিখ। বেশ পুরাতন ও জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট হলেও এর কোনো নির্ধারিত তারিখ ছিল না। কিন্তু এবার আইসিসির প্রস্তাবিত সূচিতে আলাদা স্থান রাখা হয়েছে এশিয়া কাপের জন্য।
পরবর্তী ৩ এশিয়া কাপের তারিখ চূড়ান্ত

২০১৯ সাল থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত আইসিসি ভবিষ্যৎ সূচির প্রস্তাবনা দিয়েছে। পাঁচ বছর মেয়াদী এ প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে পাঁচ বছরে এশিয়া কাপ হবে তিনটি। ২০১৮, ২০২০ ও ২০২২- এ তিন বছরে তিনটি এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে। এশিয়া কাপের জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর।

এশিয়া কাপের ফরম্যাট ঠিক করা হবে বিশ্বকাপ অনুযায়ী। এতদিন ওয়ানডে ফরম্যাটে খেলা হলেও ২০১৬ এশিয়া কাপে খেলা হয়েছিল টি-২০। ২০১৬ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের কারণে টি-২০ এশিয়া কাপ আয়োজিত হয়। ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। তাই ২০১৮ সালের এশিয়া কাপ হবে ওয়ানডে সংস্করণে। ২০২০ সালের টি-২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ২০২০ এশিয়া কাপ আয়োজিত হবে টি-২০ এশিয়া কাপ।

Also Read - রংপুর যাচ্ছে বিপিএলের ট্রফি

২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত দুই বছর অন্তর অন্তর তিনটি এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল, তিনটি এশিয়া কাপই আয়োজিত হয়েছিল বাংলাদেশে। ২০১৮ সালের এশিয়া কাপের স্বাগতিক দেশ শ্রীলঙ্কা। ২০২০ ও ২০২২ সালের এশিয়া কাপের স্বাগতিক দেশ কোনটি হবে তা এখনো নির্ধারিত হয়নি।

ওয়ানডে সংস্করণে এশিয়া কাপ আয়োজিত হলে ম্যাচগুলো আইসিসির ওয়ানডে লিগেও অন্তর্ভুক্ত হবে না। আলাদা টুর্নামেন্ট হিসেবে আয়োজিত হবে এশিয়া কাপ।

ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রধান নির্বাহীদের সভা। আইসিসির এ ভবিষ্যৎ সূচির প্রস্তাবনা পাঠানো হবে সেখানে। সভায় চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে প্রস্তাবনাটি।

প্রস্তাবিত সূচি অনুসারে ২০১৯ সাল থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ম্যাচ ১২২ টি। ৩৫ টি টেস্ট খেলার সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। সবচেয়ে বেশি খেলবে ওয়ানডে। বাংলাদেশ ওয়ানডে খেলবে ৪৫টি।  এছাড়া নতুন সূচি অনুযায়ী ৪২টি টি-২০ ম্যাচ খেলবে টাইগাররা।

আরও পড়ুনঃ রংপুর যাচ্ছে বিপিএলের ট্রফি

Related Articles

কুকের বদলি নিয়েই শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে ইংল্যান্ড

বাংলাদেশের অসহায় আত্মসমর্পণ

মিরাজ-মাশরাফির দৃঢ়তায় বাংলাদেশের সম্মানজনক সংগ্রহ

রশিদের চোখে ‘প্রেরণা ও তৃপ্তিদায়ক’ পারফরম্যান্স

ফখর জামানের কঠোর সমালোচনায় গাভাস্কার