পরাজয়ের বৃত্তে বন্দী অস্ট্রেলিয়া

0
982

অস্ট্রেলিয়ার দুঃসময় যেন কাটছেই না। সিরিজ হার নিশ্চিত হয়েছে তৃতীয় ওয়ানডেতে পরাজয়ের পরই। চতুর্থ ম্যাচে লড়াকু সংগ্রহের পর প্রত্যাশা ছিল একটি জয়ের। তবে ইংল্যান্ডের ফর্মের তুঙ্গে থাকা ব্যাটিং লাইনআপের সামনে আবারও পাত্তা পেলেন না অজি বোলাররা। ফলাফল, পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৬ উইকেটে হারিয়ে স্বাগতিকরা এগিয়ে আছে ৪-০ ব্যবধানে।

পরাজয়ের বৃত্তে বন্দী অস্ট্রেলিয়া
ইংল্যান্ডের জয়ে বড় অবদান ছিল বেয়ারস্টোর। অবশ্য ইংলিশ ব্যাটসম্যানের এই স্বস্তির চেহারা আর অজি ক্রিকেটারের হতাশাকে ধরে নেওয়া যায় সিরিজের প্রতীকী চিত্র! ছবিঃ এএফপি

চেস্টার-লি-স্ট্রিটে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩১০ রানের বড় সংগ্রহ পায় অস্ট্রেলিয়া। তবে সেই সম্মানজনক পুঁজির পেছনে অবদান ছিল মাত্র তিন ব্যাটসম্যানের।

Advertisment

অ্যারোন ফিঞ্চ ও টিম হেডের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে উদ্বোধনী জুটিতে অজিরা পায় ১০১ রান। ৬৪ বলে ৬৩ রান করার পর হেড উইকেট হারালে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। তবে তাতে দলের বিপর্যয় ঘটতে দেননি ওয়ান ডাউনে নামা ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যান শন মার্শ। দ্বিতীয় উইকেটে তার সাথে ১২৪ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ওপেনার ফিঞ্চ।

দলীয় ২২৫ রানে ফিঞ্চ সাজঘরে ফেরার আগে তুলে নেন শতক। ১০৬ বলের ইনিংসে শতক তুলে নেওয়ার পরপরই অবশ্য সাজঘরে ফেরেন তিনি। এরপর একপ্রান্তে মার্শ আগলে রাখলেও অপর প্রান্তে আসা-যাওয়ায় ব্যস্ত ছিলেন ব্যাটসম্যানরা। একটা সময় মহামারীর মত উইকেট খোয়াতে থাকে সফরকারীরা।

দলীয় ২৯৬ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফিরতে হয় মার্শকেও। তবে তার আগে তিনিও তুলে নেন শতক। ৯২ বলে ১০১ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে উইলির বলে উইকেট হারান তিনি। ফিঞ্চ, হেড, মার্শ- টপ অর্ডারের এই তিন ব্যাটসম্যান ছাড়া দুই অঙ্কের রানের দেখা পান কেবল অ্যাস্টন অ্যাগার। তার ব্যাট থেকে আসে মাত্র ১৯ রান।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দুই ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টোর দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে দারুণ শুরু পায় ইংল্যান্ড। ১৭৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ৮৩ বলে ১০১ রান করেন রয় একাই। তার বিদায়ের পর অবশ্য সাজঘরে ফিরেন বেয়ারস্টোও। ৬৬ বলের মোকাবেলায় ৭৯ রান করেন তিনি।

দুজনের বিদায়ের পর দলকে আর জয় নিয়ে ভাবতে হয়নি জস বাটলার (২৯ বলে ৫৪*), অ্যালেক্স হেলস (৪৫ বলে ৩৪*) এবং জো রুটের (৩৫ বলে ২৭) দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে। ৩২ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্বাগতিকরা।

ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন জেসন রয়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া ৩১০/৮ (৫০ ওভার); মার্শ ১০১, ফিঞ্চ ১০০, হেড ৬৩; উইলি ৪৩/৪, উড ৪৯/২

ইংল্যান্ড ৩১৪/৪ (৪৪.৪ ওভার); রয় ১০১, বেয়ারস্টো ৭৯, বাটলার ৫৪*; অ্যাগার ৪৮/২, লায়ন ৩৮/১

ফল- ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী।

আরও পড়ুনঃ তুষারের কাছে ‘এ’ দল ফিরে আসার মঞ্চ