পরিবার আফগানিস্তানে, ইংল্যান্ডে দুশ্চিন্তায় রশিদ : পিটারসেন

0
1108

যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃককে পরাজিত করে আফগানিস্তান দখল করে নিয়েছে তালেবানরা। এমতাবস্থায় রশিদ খান খেলছেন ইংল্যান্ডে এবং তার পরিবার আছে আফগানিস্তানে। দেশে সংঘাতের আশঙ্কায় নিজের দুশ্চিন্তার কথা রশিদ জানিয়েছেন কেভিন পিটারসেনকে।

পরিবার আফগানিস্তানে, ইংল্যান্ডে দুশ্চিন্তায় রশিদ  পিটারসেন
দ্য হান্ড্রেডে রশিদ খান

প্রায় দুই যুগ ধরে আফগানিস্তানে আসন গড়েছিল মার্কিন সেনাবাহিনী। প্রতিনিয়তই দেশটিতে শোনা যায় সংঘাতের সংবাদ। অবশেষে চলতি বছর আফগানিস্তান ছাড়তে শুরু করে মার্কিনিরা। ফলে দেশীয় সংগঠন তালেবান দখল করে নিয়েছে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রক্ষমতা। বিভিন্ন পক্ষের এই সংঘাতে প্রাণ গিয়েছে অনেক সাধারণ মানুষের। তালেবানরা দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দিলেও মানুষ এখনো স্থির হতে পারছেন না।

Advertisment

আফগানিস্তানের তারকা ক্রিকেটার রশিদ এখন ইংল্যান্ডে দ্য হান্ড্রেড টুর্নামেন্ট খেলছেন। কিন্তু তার পরিবার আফগানিস্তানেই অবস্থান করছে। এই সংকটময় পরিস্থিতিতে পরিবারকে দেশ থেকে বের করে আনতে পারেননি রশিদ, তাই দূর দেশে বসে তার চিন্তার শেষ নেই। নিজের এই দুশ্চিন্তা নিয়ে কথা বলেছেন সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার পিটারসেনের সাথে।

পিটারসেন বলেন, ‘আমি রশিদ খানের সাথে অনেকক্ষণ কথা বলেছি। সে খুব দুশ্চিন্তায় আছে। তার পরিবারকে আফগানিস্তান থেকে বের করতে পারেনি। অনেক চাপ নিয়েই সে এখন দ্য হান্ড্রেডে খেলছে এবং ভালো পারফর্মও করছে। আমার মনে হয়, এটি হৃদয়স্পর্শী একটি ঘটনা।’

সম্প্রতি রশিদ খান একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি গত পাঁচ বছরে একমাসও দেশে থাকেননি। ফলে পরিবারের সাথে নিজের অর্জনগুলো উদযাপনের সুযোগ তিনি পান না। তিনি কী কী অর্জন করেছেন তা ভুলতেও বসেছেন। কিন্তু ক্যারিয়ারের শুরুর সময়ে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য তাকে এই ত্যাগ স্বীকার করতেই হয়েছে।

রশিদের ভাষায়, ‘গত পাঁচ বছরে আমি মাত্র ২৫ দিন মতো দেশে থেকেছি। পরিবারের সাথে আমার অর্জনগুলো উদযাপনের সুযোগ আমি পাই না। আমি অনেক ব্যস্তও থাকি। আমি আমার অনেক অর্জনের কথা ভুলেও গিয়েছি এবং এটি আমাকে কষ্ট দেয়। আমার ক্যারিয়ার গড়ার এই সময়ে পরিবার থেকে দূরে থাকার এই সংগ্রাম আমাকে মেনে নিতে হয়েছে।’