পরিসংখ্যানে ডিপিএল টি-টোয়েন্টি ২০১৯-২০

0
673

শনিবার (২৬ জুন) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) ২০২১ আসরের পর্দা নেমেছে। ডিপিএলে টানা তৃতীয় বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আবাহনী লিমিটেড। শিরোপার খুব কাছে গিয়েও আবাহনীর কাছে হেরে রানার্স-আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে।

সাইফউদ্দিন ঝলকে হ্যাটট্রিক শিরোপা জিতল আবাহনী
শিরোপা জয়ের পর আবাহনীর উদযাপন।

জাতীয় দলের পাশাপাশি নিয়মিত ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা খেলোয়াড়রাও এবারের ডিপিএলে পারফর্ম করেছেন বেশ। সবাইকে পেছনে ফেলে এবারের ডিপিএলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ব্রাদার্স ইউনিয়নের মিজানুর রহমান।

Advertisment

ব্যাট হাতে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ব্রাদার্স অধিনায়ক মিজানুর। ১১ ম্যাচের ১০ ইনিংসে ৫২.২৫ গড়ে আসরের সর্বোচ্চ ৪১৮ রান করেন তিনি। পুরো টুর্নামেন্টে ১৩৩.৯৭ স্ট্রাইক রেটে টি-টোয়েন্টি উপযোগী ব্যাটিং করেছেন এই ব্যাটসম্যান।

এবারের আসরের প্রথম সেঞ্চুরির দেখা মেলে মিজানুরের ব্যাট থেকেই। প্রথম পর্বের ম্যাচে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির বিপক্ষে ৬৫ বলে অপরাজিত ১০০ রানের ইনিংস খেলেন ব্রাদার্স অধিনায়ক। এক সেঞ্চুরির পাশাপাশি মিজানুরের অর্ধশতক তিনটি।

টুর্নামেন্টের অপর সেঞ্চুরিটি এসেছে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের ওপেনার হাসানুজ্জামানের ব্যাট থেকে। ওল্ড ডিওএইচএসের বিপক্ষের ঝড়ো গতিতে ৫২ বলে ১০৫ করে এবারের আসরে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের মালিক তিনি।

ডিপিএলের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকায় সবার উপরে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ১৬ ম্যাচে ২৬ উইকেট তুলে নিয়েছেন চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর এই অলরাউন্ডার। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী সাইফউদ্দিনের ইকোনমি মাত্র ৬.৭৯। প্রতিটি উইকেটের পেছনে গড়ে ১৫.৮০ রান ব্যয় করেছেন তিনি। বল হাতে এই সাইফউদ্দিনের সেরা বোলিং ফিগার ১৮/৪।

আসরের সেরা বোলিং ফিগার অবশ্য শেখ জামালের বাঁহাতি পেসার সালাউদ্দিন শাকিলের। পারটেক্সের বিপক্ষে মাত্র ১৬ রান খরচায় শাকিল তুলে নেন পাঁচ উইকেট।

এবারের ডিপিএলে উইকিকিপিংয়ে সবার চেয়ে এগিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলী। লিটন, সোহানসহ আরও অনেকেই ভালো করলেও ডিসমিসালের দিক থেকে বাকি সবাইকে পেছনে ফেলেছেন আকবর। ১৭ ম্যাচে ৯ ক্যাচ ও ৬ স্ট্যাম্পিংয়ে আকবর সাজঘরে ফিরিয়েছেন মোট ১৫ জন ব্যাটসম্যানকে।

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান ১৬ ম্যাচে ৩৫.৩৬ গড়ে ৩৮৯ রান এবং ১২টি ডিসমিসাল নিয়ে জিতেছেন টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের খেতাব। এবারের আসরে শেখ জামালকে নেতৃত্বও দিয়েছেন সোহান।

এদিকে ১৪টি ক্যাচ নিয়ে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ক্যাচ নেওয়া ফিল্ডারের নাম লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জের সাব্বির রহমান।

রূপগঞ্জের আরেক দুই ক্রিকেটারের হাত ধরে এসেছে এবারের আসরের সর্বোচ্চ রানের জুটি। রেলিগেশন রাউন্ডের ম্যাচে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে ১৬৯ রানের উদ্বোধনী গড়েন মেহেদী মারুফ ও জাকের আলী। মারুফ ৯৪ ও জাকেরের ব্যাট থেকে আসে ৭৬।

মারুফ-জাকেরদের ১৬৯ রানের জুটির ম্যাচে ২০০ রানের বড় পুঁজি পায় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। যা এবারের ডিপিএলের দলীয় সর্বোচ্চ রানের মাইলফলক।

এক নজরে ডিপিএল টি-টোয়েন্টি ২০২১

চ্যাম্পিয়ন: আবাহনী লিমিটেড
রানার্স-আপ: প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব

সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক: মিজানুর রহমান (৪১৮ রান)
এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রান: হাসানুজ্জামান (৫২ বলে ১০৫ রান)
সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী: মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন (২৬ উইকেট)
সেরা বোলিং ফিগার: সালাউদ্দিন শাকিল ১৬/৫।

ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট: নুরুল হাসান সোহান

সর্বোচ্চ ডিসমিসাল: আকবর আলী (১৫টি)
সর্বোচ্চ ক্যাচ: সাব্বির রহমান (১৪টি)

সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ: মেহেদী মারুফ ও জাকের আলী (১৬৯ রান)
সর্বোচ্চ দলীয় রান : ২০০/৩ (লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ)