Score

পাকিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের রোমাঞ্চকর জয়

অনুর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে বাঁচা-মরার ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ যুবারা। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানের দেয়া ১৮৮ রানের টার্গেট ১৬ বল আর ৩ উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় বাংলাদেশ।

 

ছবিঃ এসিসি

 

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে গ্রুপ ‘বি’ এর চতুর্থ ম্যাচে সকালে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক তৌহিদ হৃদয়। ওপেনিং জুটিতে ৩০ রান তোলে পাকিস্তান। এরপর ১১ রান করা মোহাম্মদ মহসিনকে ফিরিয়ে টাইগারদের প্রথম সাফল্য এনে দেন অভিষেক দাস। শুরুর এই ধাক্কা কাটাতে চেষ্টা করেন আরেক ওপেনার সাইম আয়ুব ও পাকিস্তান অধিনায়ক রোহাইল নাজির। তবে তিন বলের মধ্যে দুই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে দারুণভাবে ম্যাচে ফেরান রিশাদ হোসেন। ২৩ রানে ফেরেন অধিনায়ক নাজির ও শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন সাদ খান।

Also Read - প্রাথমিক বিপর্যয় কাটিয়ে লড়ছে বাংলাদেশ

তবে ওপেনার সাইম আয়ুব লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন। চতুর্থ উইকেটে ওয়াকার আহমেদকে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৪৭ রানের জুটি গড়ে তোলেন। ৪৯ রান করা আয়ুবের রান আউটের মাধ্যমে এই জুটি ভাঙ্গে। এরপর ওয়াকার আহমেদ একাই চেষ্টা করে যান, কিন্তু অন্য প্রান্তে কেউ ভালো সঙ্গী হতে পারেন নি। যার ফলে ৪৫.২ ওভারে ১৮৭ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান।

ছবিঃ এসিসি

 

পাকিস্তান দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন ওয়াকার আহমেদ। ৫৮ বলে ১০ চার আর একটি ছক্কা হাঁকান এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার। এদিকে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নিয়েছেন রিশাদ হোসেন। এছাড়া শরিফুল ২টি উইকেট নেন।

পাকিস্তান দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন ওয়াকার আহমেদ। ৫৮ বলে ১০ চার আর একটি ছক্কা হাঁকান এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার। এদিকে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নিয়েছেন রিশাদ হোসেন। এছাড়া শরিফুল ২টি উইকেট নেন।

১৮৮ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দলের। দলীয় ১ রানের মাথায় শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন তানজিদ হাসান। এরপর নাবিলকে নিয়ে ২৯ রান যোগ করেন আরেক ওপেনার সাজিদ। দলীয় ৩০ রানের মাথায় ২১ রানে বিদায় নেন সাজিদ। এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি অধিনায়ক তৌহিদ হৃদয়ও। ৮ বলে ১০ রানে আউট হয়েছেন তিনি।

৪২ রানে তিন উইকেট হারানো বাংলাদেশ এরপর শামিম আর নাবিলের জুটিতে ম্যাচে ফিরে। চতুর্থ উইকেট জুটিতে এই দুই ব্যাটসম্যান ৯৭ রান তোলেন। যা টাইগারদের জয়ের ভিত গড়ে দেয়।  ৯৩ বলে ৫৮ রান করা নাবিলের আউটের মাধ্যমে এই জুটি ভাঙ্গে। এরপর ৬৫ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হোন শামিম।তারপর টাইগারদের ইনিংসে আকস্মিক ধস নামে.১৭৪-১৮৪ রানের  মধ্যে ৩ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। তবে ৩১ বলে ১৭ রান করে এক প্রান্ত আগলে দলের জয় নিশ্চিত করেন আকবর আলী। ১৬ বল আর ৩ উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় বাংলাদেশ। পাকিস্তানের পক্ষে ৩ উইকেট নেন মোহাম্মদ মুসা।

এই জয়ে টুর্নামেন্টে ভালোভাবেই টিকে রইলো বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্বের নিজেদের শেষ ম্যাচে আগামীকাল (২ অক্টোবর) হংকংয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশের যুবারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
পাকিস্তানঃ ১৮৭/১০ (৪৫.২ ওভার)
ওয়াকার আহমেদ ৬৭ , সাইম আয়ুব ৪৯
রিশাদ মাহমুদ ৩/৫৩, শরিফুল ইসলাম ২/২০

বাংলাদেশঃ ১৯১/৭ (৪৭.২ ওভার)
শামিম হোসেন ৬৫*, প্রান্তিক নাবিল ৫৮
মোহাম্মদ মুসা ৩/২০

ফলাফলঃ বাংলাদেশ ৩ উইকেটে জয়ী। 

[আরও পড়ুনঃ ‘বিশ্ব ক্রিকেটে সম্মাজনক জায়গা আদায় করেছে বাংলাদেশ’]

Related Articles

‘আমরা ছোট দল হই কীভাবে?’

শরিফুল-হৃদয়দের বোলিং তান্ডবে অল-আউট ভারত

বাংলাদেশের বোলিং তোপে উড়ে গেল হংকং

প্রাথমিক বিপর্যয় কাটিয়ে লড়ছে বাংলাদেশ

পাকিস্তানকে ১৮৭ রানে গুটিয়ে দিলো বাংলাদেশ যুবারা