Score

পান্ডিয়ার গতিতে বিধ্বস্ত ইংল্যান্ড

ট্রেন্ট ব্রিজে ইংলিশরা দেখলেন হার্দিক পান্ডিয়ার আগুন ঝরা বোলিং। ভারতীয় এই পেসারের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে নটিংহ্যাম টেস্টে স্বাগতিক দল নিজেদের প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে গেছে মাত্র ১৬১ রানে। এতে ১৬৮ রানের বড় লিড নিয়ে জয়ের সুবাস পাচ্ছে প্রথম ইনিংসে ৩২৯ রান জড়ো করা ভারত।

পান্ডিয়ার গতিতে বিধ্বস্ত ইংল্যান্ড

৬ উইকেটে ৩০৭ রান নিয়ে খেলতে নেমে দ্বিতীয় দিন বেশিক্ষণ ব্যাট করতে পারেনি ভারত। স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসনের বোলিং তোপে স্কোর বোর্ডে আরও ২২ রান যোগ করতেই অলআউট হয়ে যায় বিরাট কোহলির দল। ইংল্যান্ডের পক্ষে তিনটি করে উইকেট শিকার করেন ক্রিস ওকস, ব্রড ও অ্যান্ডারসন।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড শুরুটা করেছিল ভালোই। অ্যালিস্টার কুক ও কিটন জেনিংস এনে দিয়েছিলেন ৫৪ রান। তবে ২৯ রান করা কুকের বিদায়েই বিপর্যয়ের শুরু। পরের বলেই সাজঘরে ফেরেন ২০ রান করে জেনিংস। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে ইংল্যান্ড।

Also Read - আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেট কাঠামোর প্রশংসায় মিঠুন

নবম উইকেটের পতন ঘটার আগ পর্যন্ত বলার মত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেননি কেউই। একপ্রান্ত আগলে রেখে যথাসাধ্য চেষ্টা করে গেছেন জস বাটলার। শেষদিকে অ্যান্ডারসনকে ‘দর্শক’ হিসেবে সঙ্গে নিয়ে মারমুখো ব্যাট চালিয়ে দলের রান যথাসম্ভব বাড়ানোর চেষ্টা করেছেন, শেষপর্যন্ত বাটলার সাজঘরে ফিরেছেন ৩২ বলে ৩৯ রান করে। তার এই রানই ইংল্যান্ডের ইনিংসে কুকের পর সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর!

অধিনায়ক জো রুট থেকে শুরু করে স্বাগতিক দলের কেউই এদিন ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। রুটের ১৬ রানের মতই ম্লান ছিল অলি পপের ১০, জনি বেয়ারস্টোর ১৫ কিংবা বেন স্টোকসের ১০ রানের ইনিংসগুলো। লোয়ার অর্ডাররা তো ছিলেন আরও নিষ্প্রভ।

ভারতের পক্ষে হার্দিক একাই শিকার করেন পাঁচটি উইকেট। এছাড়া জাসপ্রিত বুমরাহ ও ইশান্ত শর্মা দুটি করে উইকেট লাভ করেন। ইংল্যান্ডের চেয়ে ১৬৮ রানে এগিয়ে থেকে এখন নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করছে ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ভারত ৩২৯/১০ ও ৪/০*

ইংল্যান্ড ১৬১/১০ (বাটলার ৩৯, কুক ২৯; হার্দিক ২৮/৫)

ভারতের লিড ১৭২ রানের।

আরও পড়ুন: কাঠগড়ায় এবার ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজ’ পদ্ধতি

Related Articles

প্রস্তুতি ভালো হয়েছে, দাবি ব্র্যাথওয়েটের

পাকিস্তানের চেয়েও ছোট পরাজয় আছে আরও চারটি

কেন পাপনের দায়িত্ব গ্রহণের সময় ছিলেন না ভারতীয় কেউ?

ধোনির থেকে প্রত্যাশা কমানোর পরামর্শ কপিলের

এভাবেও হারা যায়, পাকিস্তান!