Scores

প্রথমদিন শেষে চালকের আসনে ইংল্যান্ড

লর্ডস টেস্টে হারার পর সকল সমালোচনার জবাব প্রথম দিনেই কিছুটা দিয়ে দিয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ইংলিশদের বোলিং অ্যাটাকের পর টপ অর্ডারের দারুণ ব্যাটিংয়ে শক্ত ভিত পায় স্বাগতিকরা। যদিও শেষদিকে আউট হয়ে যান এলেস্টার কুক।

ছবিঃ ক্রিকইনফো

 

দিনশেষে দুই উইকেট হারিয়ে ১০৬ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। পাকিস্তান থেকে তারা পিছিয়ে ৬৮ রানে। উইকেটে ২৯ রানে অপরাজিত আছেন জো রুট ও শূন্য রানে ডমিনিক বেস। মার্ক স্টোনম্যানের জায়গায় ইনিংস উদ্বোধন করতে নেমে খারাপ করেননি কিটন জেনিংস। টেস্টে টানা সর্বোচ্চ ১৫৪ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়া কুকের সঙ্গে ১৭ ওভারে গড়েন ৫৩ রানের জুটি।

Also Read - প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের লড়াকু সংগ্রহ


লর্ডস টেস্টে নেমে স্পর্শ করেছিলেন অ্যালান বর্ডারকে। ছাড়িয়ে যাওয়া ছিল সময়ে ব্যাপার মাত্র। হেডিংলি টেস্টে মাঠে নেমে টানা টেস্ট খেলার বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে অ্যালেস্টার কুক নিজেকে নিয়ে গেলেন অনন্য উচ্চতায়। ভেঙে দিয়েছেন দুই যুগ ধরে টিকে থাকা রেকর্ড। নাম লেখালেন ইতিহাসের পাতায়।

ওপেনার জেনিংসকে কট বিহাইন্ড করে ফিরিয়ে স্বাগতিক শিবিরে প্রথম ধাক্কা দেন ফাহিম আশরাফ।

এরপর কুক ও রুটের জমাট ব্যাটিংয়ে দিনের বাকি সময়টায় আর কোনো ক্ষতি ছাড়াই কাটিয়ে দেওয়ার পথে ছিল ইংল্যান্ড। শেষ সময়ে কুককে কট বিহাইন্ড এর ফাঁদে ফেলে আউট করেন হাসান আলি। রেকর্ড গড়ার ম্যাচে ৭ চারে ৪৬ রানে ফিরেন বাঁহাতি ওপেনার কুক।

২০০৬ সালে লর্ডসে শ্রীলঙ্কা টেস্ট দিয়ে দলে ফিরেছিলেন কুক। এরপর আর বাদ পড়েননি কোনোদিন। চোট, ছন্দপতন সবকিছুকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে যেন ছুটছেন কুক। কোনো কিছুই থামাতে পারেনি এখন পর্যন্ত। গত একযুগ ধরে কুক হয়ে আছেন অদম্য। নিয়মিত দিয়ে যাচ্ছেন আস্থার প্রতিদান।

প্রথম দিন কোনো উইকেট পাননি আগের ম্যাচের সেরা দুই বোলার মোহাম্মদ আব্বাস ও মোহাম্মদ আমির। টস জিতে শুক্রবার দুই অধিনায়কই আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য ছিলেন উন্মুখ। ভাগ্য সহায় ছিল সরফরাজ আহমেদের; কিন্তু টস হেরেই যেন শাপে বর হয়েছে ইংলিশ অধিনায়ক জো রুটের।

টসের সময় ছিল আকাশ ছিল ঝকঝকে পরিষ্কার, দুই ওপেনার আজহার আলি ও ইমাম-উল-হক যখন ব্যাটিংয়ে নামেন তখন আস্তে আস্তে আকাশ ঢেকে যেতে থাকে মেঘে। কন্ডিশনের সুবিধা পুরোপুরি কাজে লাগান স্বাগতিক পেসার ব্রড-অ্যান্ডারসন। তাদের সুইংয়ের ছোবলের সামনে টিকতে পারেনি অতিথিদের ব্যাটিং লাইন আপ।

ব্রডের বলে তৃতীয় স্লিপে ক্যাচ দিয়ে দ্বিতীয় ওভারেই ফিরে যান ইমাম। আরেক ওপেনার আজহারকেও ফেরান ব্রড। থিতু হওয়া দুই ব্যাটসম্যান হারিস সোহেল ও আসাদ শফিককে বিদায় করেন ওকস। অভিষেকে প্রথম ইনিংসে সুবিধা করতে পারেননি উসমান সালাউদ্দিন। ৪ রান করে ফিরে যান এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

৭৯ রানে ৭ উইকেট হারানো দলটি ১৭৪ রান পর্যন্ত যায় লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার শাদাব খানের দৃঢ়তায়। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ৫২ বলে ১০টি চারে করেন ৫৬ রান। দশ নম্বরে নেমে ১৬ বলে ২৪ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ফিরেন হাসান।

ব্রড, অ্যান্ডারসন ও ওকস নেন তিনটি করে উইকেট। অন্য উইকেটটি নেন অভিষিক্ত পেসার স্যাম কারান।

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪৮.১ ওভারে ১৭৪ (আজহার ২, ইমাম ০, হারিস ২৮, সালাউদ্দিন ৪, সরফরাজ ১৪, শাদাব ৫৬, আশরাফ ০, আমির ১৩, হাসান ২৪, আব্বাস ১*; অ্যান্ডারসন ৩/৪৩, ব্রড ৩/৩৮, ওকস ৩/৫৫, কারান ১/৩৩)

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৩৭ ওভারে ১০৬/২ (কুক ৪৬, জেনিংস ২৯, রুট ২৯*, বেস ০*; আমির ০/৩৭, আব্বাস ০/২২, হাসান ১/২৪, আশরাফ ১/১৬, শাদাব ০/৫)

আরো পড়ুনঃ  প্রস্তুতি ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

পাকিস্তান থেকে ফিরে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষকদের সবুজ সংকেত

ভারতের বিপক্ষে স্মিথ, লক্ষ্মণের ‘ড্রিম এলেভেনে’ সাকিব-তামিম

ব্র‍্যাডম্যানকেও টপকে গেলেন রোহিত!

আইরিশদের হারিয়ে আরব আমিরাতের চমক

সরফরাজের ‘সুবিচার’ চেয়ে প্রতিবাদ করবে পাকিস্তানিরা!