Scores

‘প্রথম লক্ষ্য হল দলের জন্য খেলা’

উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান বলে দলে তার চাহিদা থাকে একটু বেশিই। ঘরোয়া লিগে খেলে থাকেন টপ অর্ডারে। তবে জাতীয় দলে এলেই ব্যাটিং পজিশন পাল্টে নেমে যেতে হয় মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে। মুশফিকুর রহিম দলে থাকায় গ্লাভস হাতেও খুব এতটা শ্রম দিতে হয় না।

দীর্ঘ এক বছর পর দলে ফেরা নুরুল হাসান সোহান ডাক পেয়েই জানিয়েছিলেন, নিজেকে প্রমাণের জন্য কতটা মুখিয়ে আছেন তিনি। সাথে এও জানালেন, দলের জন্য নিজেকে উজাড় করে দিতে রয়েছেন শতভাগ প্রস্তুত।

Also Read - সাব্বির-ইমরুলের অন্তর্ভূক্তি কতোটা যুক্তিপূর্ণ?


সম্প্রতি নুরুল হাসান বলেন, দলের জন্য প্রয়োজন অনুসারে খেলাই তার প্রথম এবং প্রধান লক্ষ্য, ‘ক্লাব দল বা দেশের জন্য যেখানেই খেলি না কেন, প্রথম লক্ষ্য হলো দলের জন্য খেলা। দলের প্রয়োজন মেটানো। যেভাবে আমার কাছে চাওয়া হবে, সেভাবেই খেলার চেষ্টা করব। দলের চাহিদা যাতে পূরণ করতে পারি। দলের জন্য যদি ১০ রানও দরকার হয়, সেটাই করতে চাই।’

জাতীয় দলের জার্সিতে খেললে ব্যাটসম্যানদের মধ্যে শেষদিকেই নামতে হয় তাকে। এই বাস্তবতা মেনেই দলে অবদান রাখার মানসিকতা তার। নুরুল বলেন, ‘সত্যি কথা বললে আমাকে পরের দিকেই নামতে হবে। আমি যে সময় নামব, তখন হয়তো ১০ রানই অনেক হয়ে যেতে পারে। ওই ১০ রানই হয়তো ম্যাচে ব্যবধান গড়ে দিতে পারে।’

ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক ভালো পারফরমেন্স রয়েছে নিয়মিতই। এরপরও গত এক বছর দলে ব্রাত্য ছিলেন। তার সামনেই তার অনেক সতীর্থ জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন। ঐ সময় দৃঢ় ছিলেন মানসিকভাবে। নুরুল হাসানের ভাষ্য, ‘এমনও হয়েছে যে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলছি এবং টুর্নামেন্টের মাঝপথে আমারই কোনো সতীর্থ হয়তো জাতীয় দলে খেলতে চলে যাচ্ছে। এসব ব্যাপার তো মাথায় চলে আসেই। তখন চিন্তা করেছি ভালো খেলে একসময় আমিও যাব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনের ওপর প্রভাব ফেলতে দিইনি বরং ইতিবাচকভাবেই বিষয়টিকে দেখে ভালো খেলার চেষ্টা করে গেছি।’

আরও পড়ুনঃ রাজনীতিবিদ ওয়ার্নার!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

রুবেল হোসেনের সমস্যা কোথায়?

নিদাহাস ট্রফি থেকে ৪৮২ শতাংশ লাভ!

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

যেখান থেকে শুরু ‘নাগিন ড্যান্স’ উদযাপনের

‘খারাপ করছি দেখেই বেশি চোখে পড়ছে’