Scores

‘প্রথম সুযোগেই সেরা স্পিনারকে দলে নিয়েছি’

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম জনপ্রিয় আসর ভারতের আইপিএলে দীর্ঘ সাত বছর কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ২০১১ সালে তাঁকে দলে ভেড়ায় নাইটরা। মাঝে তাঁকে ছেড়ে দিলেও আবারও নিলামের মাধ্যমে তাঁকে দলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স।

তবে দীর্ঘ সাত বছর পর নতুন ঠিকানায় পাড়ি জমিয়েছেন সাকিব। আইপিএলের এগারোতম আসরে নিলামের জন্য সাকিবকে ছেড়ে দেয় কলকাতা। নিয়ম অনুযায়ী পুরনো দল থেকে সর্বোচ্চ তিন ক্রিকেটারকে দলে রাখতে পারবে প্রত্যেক ফ্র্যাঞ্চাইজি। তবে এবার আর নিলামে তাঁকে দলে ভেড়ায়নি কলকাতা।

Also Read - তাসকিন-সৌম্যদের জন্য মাশরাফির প্যাশন টোটকা


এবারের নিলামে সাকিবের ভিত্তি মূল্য ছিল ভারতীয় ১ কোটি রুপি। সেখান থেকে নিলামে ২ কোটি রুপিতে সাকিবকে দলে নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। এর আগের দুই আসরে হায়দরাবাদের হয়ে খেলেছিলেন আরেক বাংলাদেশি মুস্তাফিজুর রহমান। এই আসরে নিলামের জন্য তাঁকে ছেড়ে দিলেও দলে ভেড়ায় আরেক বাংলাদেশিকে।

সাকিবকে দলে নিয়ে যে ভুল করেননি সেটার প্রমাণ দেন সাকিব। আইপিএলের এবারের আসরে নিজেদের দল নিয়ে ইকোনোমিক টাইমসের সঙ্গে কথা বলেন হায়দরাবাদ বোলিং কোচ মুত্তিয়া মুরালিধরন। সেখানেই উঠে আসে সাকিব প্রসঙ্গ। তার মতে, প্রথম সুযোগেই সেরা বা-হাতি স্পিনারকে দলে নিয়েছে তারা।

‘দলের দৌড়টা মাত্র শুরু হয়েছে। তবে সেটা আমরা ভালোবেসে করেছি। দলের সমতার জন্য আমরা অনেক আলোচনা করেছি। কেন ঋদ্ধিমান সাহাকে নিয়েছি, এটার পেছনে ছিল আরও বড় পরিকল্পনা।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আগের বছর আমরা স্পিনার হিসেবে পেয়েছিলাম রশিদ খানকে। এ বছর আমরা প্রথম সুযোগেই সেরা বাঁহাতি স্পিনার সাকিবকে নিয়েছি। আর এদের মতো স্পিনারের বল আটকাতে উইকেটের পেছনে সাহার (ঋদ্ধিমান) মতো কাউকেই প্রয়োজন ছিল।’

আইপিএলের এবারের আসরে এখন পর্যন্ত বল হাতে বেশ সফল সাকিব। ৩ ম্যাচে ৬.৫৫ ইকোনমিতে ৫ উইকেট নেন তিনি। ব্যাট হাতেও এক ম্যাচে দলের জয়ে বড় অবদান রাখেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

আরও পড়ুনঃ সাকিবদের জয়ের ছন্দ ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

আইপিএলে জুয়ার সঙ্গে জড়িত আরবাজ খান!

প্রেসিডেন্টের পরেই স্থান রশিদের!

‘টি-টোয়েন্টি হটাও, টেস্টে মনোযোগ দাও’

পারফরম্যান্স বিবেচনায় সাকিবের মূল্য প্রায় ৯ কোটি!

“আরেক ওভার করলে তো ম্যাচ ওখানেই শেষ!”