Scores

প্রবাসীরা তার কথা রাখবেন, বিশ্বাস সাকিবের

বিশ্বের অন্যান্য বেশিরভাগ দেশের মত বাংলাদেশেও ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস। মারাত্মক ছোঁয়াচে এ ভাইরাস সর্বপ্রথম দেখা দেয় চীনে। এরপর ইউরোপেও এর প্রাদুর্ভাব শুরু হয়। আক্রান্ত দেশ থেকে আসা মানুষের মাধ্যমে বাংলাদেশেও ছড়িয়েছে এই ভাইরাস। 

প্রবাসীরা তার কথা রাখবেন, বিশ্বাস সাকিবের

শনিবার (২১ মার্চ) পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত মোট রোগীর সংখ্যা ২৪ জন। তাদের বেশিরভাগই বিদেশফেরত ব্যক্তি বা বিদেশফেরত কারও সংস্পর্শে এসেছিলেন। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকার বিদেশফেরতদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার কড়া নির্দেশ দিলেও সেই নির্দেশনা মানছেন না অনেকেই।

Also Read - কোয়ারেন্টাইনে সাকিব আল হাসান


আর এই কারণটিকেই বাংলাদেশের জন্য হুমকিস্বরূপ মনে করছেন অনেকে। বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান সেই প্রবাসীদের অনুরোধ করে বলেছেন- তারা যেন নিয়ম মেনে কোয়ারেন্টাইনে থাকেন এবং করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমাতে ভূমিকা রাখেন।

সাকিব বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাসকে মহামারি রোগ বলে আখ্যায়িত করেছে। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। বাংলাদেশে বেশ কজন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। আমাদের এখনই সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। আমাদের সতর্কতাই পারে দেশকে সুস্থ রাখতে, আমাদেরকে সুস্থ রাখতে।’  

‘কিছু সাধারণ নিয়ম অনুসরণ করলে আমরা এই রোগ থেকে মুক্ত থাকতে পারব। যেমন- সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, হাঁচি-কাশি দেওয়ার সময় সঠিক শিষ্টাচার মেনে চলা এবং বিদেশফেরতরা নিজেকে ঘরে রাখা ও বাইরে না যাওয়া।’

বিদেশফেরত প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে সাকিব বলেন, ‘মনে রাখতে হবে- আত্মীয়স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশী এসে যেন আপনাদের সাথে দেখে করতে না পারেন। ১৪ দিন আপনি নিজেকে ঘরে আলাদা করে রাখতে হবে।  নিউজের মাধ্যমে জেনেছি- অনেকেই আমাদের দেশে বিদেশ থেকে ফিরেছেন, তারা আমাদের দেশেরই মানুষ। যেহেতু তাদের ছুটির সময় কম থাকে, তারা চান আত্মীয়স্বজনের সাথে থাকতে, ঘুরাফেরা করতে, আড্ডা দিতে, অনুষ্ঠানে একত্রিত হতে। কিন্তু যেহেতু সময়টা অনুকূলে নেই, অনুরোধ করবো আপনারা নিয়মকানুনগুলো মেনে চলুন।’

প্রবাসীদের এই ভূমিকাই করোনাভাইরাসের দৌরাত্ম্য লাঘব করতে পারে জানিয়ে সাকিবের ভাষ্য,-

‘আমাদের সামান্য এই ত্যাগই পরিবারকে সুস্থ রাখতে পারে। আশা করি আপনারা আমার কথাগুলো শুনবেন, কাজে লাগানোর চেষ্টা করবেন।  বাংলাদেশ সরকার, স্বাস্থ্য সংস্থা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তাদের দিকনির্দেশনা সম্পর্কে অবগত হয়ে সেভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করবেন।’

করোনাভাইরাসের আতঙ্কে অনেকে খাবার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি মজুদ করছেন। এতে বেড়েছে নিত্য ব্যবহার্য পণ্যের দাম। ভয় না পাওয়ার আহ্বান জানিয়ে সাকিব এমন আচরণ থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করেছেন।

‘কেউ ভয় পাবেন না। আমার কাছে মনে হয় না ভয় পাওয়া কোনো ভালো ফল বয়ে আনবে। খবরে দেখেছি- অনেকে ৩ মাস, ৪ মাস, ৫ মাস, ৬ মাস পর্যন্ত খাবার মজুদ করছেন। খাবারের ঘাটতি কখনোই হবে না ইনশাআল্লাহ্‌। আমরা কেউ না খেয়ে মারা যাব না। কিছু সঠিক সিদ্ধান্তই আমাদের এই বিপদ থেকে মুক্ত করতে পারে। সেটা আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায়ই সম্ভব।’  

‘খুব প্রয়োজন ছাড়া ভ্রমণ করবেন না, ঘরের বাইরে বের হবেন না। আশা করি সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। নিজের যত্ন নেবেন, পরিবারের যত্ন নেবেন, খেয়াল রাখবেন।’– বলেন সাকিব।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিসিবি কর্মীদের সাহায্যে হাত বাড়ালেন ভেট্টোরি

ঝুলে থাকল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভবিষ্যৎ

করোনা পরবর্তী ক্রিকেট নিয়ে রিয়াদের ভাবনা

সেই চেনা দৃশ্যের অপেক্ষায়

তিন ফরম্যাটেই নিয়মিত হতে চান বিপ্লব