Scores

ফরহাদ রেজার অলরাউন্ডিং নৈপুণ্যে জয় প্রাইম দোলেশ্বরের

সকালে টসে হেরে ব্যাটিং  করতে নেমে নাঈম ইসলামের শতকের উপর ভর করে ৪৭.৪ ওভারে ১৮৮ রানেই গুটিয়ে যায় যায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে ৪১.৩ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব।

20131129-MumitM-_MMM2434

ম্যাচের শুরু থেকেই মোহামেডান ব্যাটসম্যানদের বেশ চাপে রাখে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের বোলাররা। দলীয় ২ রানের মাথায় নাসির হোসেনের থ্রোতে রান আউটের শিকার হন ওপেনার নাজিমউদ্দিন। তাঁর কিছুক্ষণ পরেই বিদায় নেন এজাজ আহমেদ। তবে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন এইবার মোহামেডানের রান মেশিন উপুল থারাঙ্গা, ব্যক্তিগত ১০ রান করেই সাজঘরে ফিরে যান তিনি। আবারো রান পাননি দল নেতা মুশফিকুর রহিম। ২৬ বলে ৮ রান করেই ফরহাদ রেজার বলে আউট হন তিনি।

Also Read - ডিপিএলের সূচি পরিবর্তন


তারপরেই দলের ত্রাণকর্তা হয়ে ফিরেন নাঈম ইসলাম, যেইখানে অন্য ব্যাটসম্যানরা আসা যাওয়ার মিছিলে ছিলেন তখনি দলকে এক পেশে থেকে ধরে রেখেছিলেন তিনি। যদিও ধীরগতিতে ইনিংস খেলেন তিনি। আরিফুলের ২৯ ও নাজমুল হোসেন মিলনের ১৪ রানের বিদায়ের পর এক প্রান্ত থেকে রানের চাকা সচল রেখেছেন নাইম ইসলাম। ব্যক্তিগত ১৪৭ বল মোকাবিলা করে সেঞ্চুরি করেই ফরহাদ রেজার বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাঁকে। নাঈমের আউটের পর রানের অঙ্কটা বেশি বাড়াতে পারেননি মোহামেডান ব্যাটসম্যানরা, ১৮৮ রানেই ইনিংস থেমে যায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে ৩টি করে উইকেট পান আল আমিন ও ফরহাদ রেজা।

১৮৯ রানের লক্ষ্যে তাড়া করতে নেমে নিজেদের ইনিংসটা বেশ ভালোভাবেই শুরু করেন দুই ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন ও রবিউল ইসলাম রবি। দুই ব্যাটসম্যান মিলে গড়েন ৫৩ রানের পার্টনারশিপ। ব্যক্তিগত ১৬ রান করেই শুভাশিসের বলে আউট হন রবি। তবে দলের রান চাকা সচল রাখেন ইমতিয়াজ হোসেন। এক প্রান্ত থেকে উইকেট পড়লেও দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে গিয়েছিলেন ইমতিয়াজ। ব্যক্তিগত ৮৮ রান করেই এনামুল হক জুনিয়রের বলে এল্বির শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

দলের হয়ে বাকি কাজটা করে দেন নাসির হোসেন ও রনি তালুকদার মিলে। অন্যদিকে ব্যর্থতার পিড়ায় পড়ে মোহামেডান বোলাররা। শেষ দিকে নাসিরের অপরাজিত ৩৭ ও রনি তালুকদারের অপরাজিত ১২ রানের উপর ভর করেই ৮ ওভার বাকি থাকতেই ৬ উইকেটের জয় তুলে নেন প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। মোহামেডানের হয়ে ২ উইকেট লাভ করেন আরিফুল হক।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব  ১৮৮ (ওভার ৪৭.৪)

নাঈম ইসলাম ১০০, আরিফুল ২৯; ফরহাদ রেজা ৩-২৬

প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব  ১৯২-৪ (ওভার ৪১.৩)

ইমতিয়াজ ৮৮, নাসির ৩৭*; আরিফুল ২-৩৪

ফলাফলঃ ৬ উইকেটে জয়ী প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব

ম্যাচ সেরাঃ ফরহাদ রেজা ( প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব)

-মুশফিকুর রিফাত,প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কালবৈশাখী ঝড়ে সিলেট স্টেডিয়ামের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

প্রিমিয়ার লিগে এবারও ভালো করার প্রত্যাশা রাব্বির

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগ শুরু ৭ এপ্রিল

রাজশাহীর সামনে আজ বরিশাল

২০ জুলাই থেকে শুরু বোলিং অ্যাকশন সংশোধনের কাজ