Scores

ফলো-অনে পড়ে নাফীসের ব্যাটে লড়ছে দক্ষিণাঞ্চল

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে ফলো-অন এড়াতে পারেনি দক্ষিণাঞ্চল। এনামুল হক জুনিয়র আর মাহমুদুল হাসানের ঘূর্ণিতে প্রথম ইনিংসে ২৫৮ রান করেই গুটিয়ে যায় দক্ষিণাঞ্চল। তবে ফলো-অনে পড়া দক্ষিণাঞ্চল ফের ব্যাটিং করতে নেমে দেখিয়েছে দৃঢ়তা। বিনা উইকেটে রান করেছে ১৩৫। ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস রয়েছেন শতকের পথে, এনামুল হক বিজয় রয়েছেন অর্ধশতকের অপেক্ষায়।
ফলো-অনে পড়ে নাফীসের ব্যাটে লড়ছে দক্ষিণাঞ্চল

চার উইকেটে ৮৯ রান নিয়ে ইনিংস শুরু করে দক্ষিণাঞ্চল। এর আগের দিন ৪৯ রানে চার উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়েছিল দক্ষিণাঞ্চল। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন নুরুল হাসান সোহান এবং রকিবুল হাসান।

দিনের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি তাদের। ৯২ রানের মাথায় বিদায় নেন নুরুল হাসান সোহান। ২২ রান করে হাসান মাহমুদের বলে ফিরে যান নুরুল হাসান। এরপর রকিবুল হাসানকে নিয়ে সাথে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন মেহেদি হাসান। দুজন মিলে গড়েন ৬৫ রানের জুটি। অর্ধশতক তূলে নেন রকিবুল হাসান। তাদের প্রতিরোধ ভাঙেন এনামুল হক জুনিয়র। ৬৬ রান করে এনামুল হক জুনিয়রের বলে উইকেটেরক্ষক জাকির হাসানের গ্লাভসে ধরা পড়েন রাকিবুল হাসান।

Also Read - ক্রিকেট মাঠে দুদক


এরপর শফিউল ইসলামকেও ফেরান এনামুল হক জুনিয়র। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে যান তিনি। মেহেদি হাসানকে দারুণ সঙ্গ দেন আব্দুর রাজ্জাক। অষ্টম উইকেটের জুটিতে আব্দুর রাজ্জাক এবং মেহেদি হাসান মিলে রান তুলেন ৫৫। এ জুটিতে দুইশ রান পার করে দক্ষিণাঞ্চল। আব্দুর রাজ্জাক খেলেন ৩৯ বলে ২২ রানের ইনিংস। তার ইনিংসে ছিল দুই চার ও এক ছক্কা। তবে টপ অর্ডারের ব্যর্থতার কারণে এ জুটি তেমন কাজে আসেনি। আব্দুর রাজ্জাককেও ফিরিয়ে দেন এনামুল হক জুনিয়র।

এরপর রুবেল হোসেনকে সাথে নিয়ে ২১ রান তুলেন মেহেদি হাসান। রুবেল হোসেন টিকেন ২০ বল। ৬ রান করে দলীয় ২৩৯ রানের সময় মাহমুদুল হাসানের বলে বোল্ড হন রুবেল হোসেন। শেষ উইকেটে আল-আমিন হোসেনকে সাথে নিয়ে শতক পূর্ণ করার দিকে হাঁটছিলেন মেহেদি হাসান। তবে তা হয়নি। ১২১ বলে ৮৬ রান করে বিদায় নেন মেহেদি হাসান। তার ইনিংস সাজানো ছিল ১১ টি চার ও ২ টি ছক্কা দিয়ে। ২৫৮ রান করে অলআউট হয় দক্ষিণাঞ্চল।

প্রথম ইনিংসে ২১৫ রানের লিড পায় পূর্বাঞ্চল। চার উইকেট পান এনামুল হক জুনিয়র। মাহমুদুল হাসান শিকার করেন তিন উইকেট। দুইটি উইকেট নেন হাসান মাহমুদ আর একটি উইকেট নেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

ফলো-অন করিয়ে ফের দক্ষিণাঞ্চলকে ব্যাটিংয়ে ডাকে পূর্বাঞ্চল। প্রথম ইনিংসে দক্ষিণাঞ্চলের টপ অর্ডার ভেঙে পড়েছিল তাসের ঘরের মতো। ১৩ রানেই ফেরত গিয়েছেন তিনজন ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় ইনিংসে দেখা গেল একদম ভিন্ন চিত্র। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪০ ওভার ব্যাটিং করেছে দক্ষিণাঞ্চল। ৪০ ওভারে কোনো উইকেট পড়তে দেননি দুই ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস ও এনামুল হক বিজয়।

দৃঢ়তার সাথে ব্যাটিং করে এ ওপেনিং জুটি। অবিচ্ছিন্ন ১৩৫ রানের জুটি গড়ে দিনশেষ করেছেন দুজন। ৬ চারে ১১৪ বলে ৪৬ রান করে অপরাজিত আছেন এনামুল হক বিজয়। আরেক ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস ১২৬ বল মোকাবেলা করে ৮১ রান সংগ্রহ করেছেন। চার মেরেছেন ১২ টি।

এখনো খেলায় সুবিধাজনক স্থানে রয়েছে পূর্বাঞ্চল। এখনো ৮০ রানে এগিয়ে রয়েছে তারা। তবে শাহরিয়ার নাফীস ও এনামুল হক বিজয়ের ওপেনিং জুটিতে ম্যাচ বাঁচানোর ক্ষীণ আশা জেগেছে দক্ষিণাঞ্চলের।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ পূর্বাঞ্চল ৪৭৩/১০,  প্রথম ইনিংস, ১৩৭.২ ওভার
শামসুর ১৫৩, ইয়াসির ১১২, রনি ৫৩
রাজ্জাক ৫/১৭১, ফজলে মাহমুদ ২/১৪, মেহেদি ২/৯৯

দক্ষিণাঞ্চল ২৫৮/১০, প্রথম ইনিংস, ৮১.১ ওভার
মেহেদি ৮৬, রকিবুল ৬৬, ফজলে মাহমুদ ২৯
এনামুল ৪/১২১, মাহমুদুল ৩/৪৩, হাসান ২/২৫

দক্ষিণাঞ্চল ১৩৫/০, (ফলো-অন) দ্বিতীয় ইনিংস, ৪০ ওভার
নাফীস ৮১*, এনামুল ৪৬*

 


আরো পড়ুনঃ  দায়িত্ব হারালেন ভারত নারী দলের বিতর্কিত কোচ পাওয়ার


 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

বিসিএলে আশরাফুলের ব্যাটে রান

ইস্ট জোনকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন আশরাফুল

মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরালেন শহিদুল-মজিদ

জুনায়েদ-নাঈমের ব্যাটে লড়ছে উত্তরাঞ্চল

মোসাদ্দেকের শতক, উত্তরাঞ্চলের লক্ষ্য ২৮৪