ফিলিপসের টর্নেডো গতির সেঞ্চুরিতে রান পাহাড়ে নিউজিল্যান্ড

0
427

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে গ্লেন ফিলিপসের সেঞ্চুরি ও ডেভন কনওয়ের হাফ সেঞ্চুরিতে রান পাহাড়ে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। দুর্দান্ত ব্যাটিং প্রদর্শনীতে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে তারা সংগ্রহ করেছে ২৩৮ রান।

ফিলিপসের টর্নেডো সেঞ্চুরিতে রান পাহাড়ে নিউজিল্যান্ড

Advertisment

বে ওভালে টস জিতে নিউজিল্যান্ডকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উদ্বোধনী জুটিতে ৪৯ রান গড়েন মার্টিল গাপটিল ও টিম সেইফার্ট। ১৩ বলে ১৮ রান করা সেইফার্টকে বোল্ড করেন ওশান থমাস। পরের ওভারেই গাপটিলকে ফিরিয়ে দেন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। গাপটিল করেন ২৩ বলে ৩৪ রান।

তৃতীয় উইকেটে ডেভন কনওয়েকে সাথে নিয়ে সাইক্লোন বইয়ে দেন গ্লেন ফিলিপস। চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছোটাতে থাকেন ফিলিপস ও তাকে সঙ্গ দেন ডেভন। ধীর শুরু করলেও ডেভনও বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন। অন্য প্রান্তে শতক তুলে নেন ফিলিপস। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম শতকের রেকর্ডটি নিজের করে নিয়েছেন এই ২৩ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান।

২২ বলে অর্ধশতক হাঁকানোর পরে ৪৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকান ফিলিপস। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডটি আগে ছিল কলিন মানরোর দখলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই বে ওভালেই ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন মানরো।

ডেভন অর্ধশতক পূর্ণ করেন ৩১ বলে। তিনি অপরাজিত থাকেন ৬৫  রানে। তার ৩৭ বলের ইনিংসে ছিল ৪টি চার ও ৪টি ছক্কায়। শতক হাঁকানো ফিলিপস ইনিংস শেষ হওয়ার এক বল আগে কাইরন পোলার্ডের শিকারে পরিণত হন। ফেরার আগে তিনি করেন ৫১ বলে ১০৮ রান। তার টর্নেডো ইনিংসটি সাজানো ছিল.১০টি চার ও ৮টি ছক্কায়।

নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩ উইকেটের বিনিময়ে ২৩৮ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কেমো পল ৪ ওভারে খরচ করেছেন ৬৪ রান। তবে কোনো উইকেটের দেখা তিনি পাননি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

নিউজিল্যান্ড ২৩৮/৩ (২০ ওভার)
ফিলিপস ১০৮, ডেভন ৬৫*, গাপটিল ৩৫;
পোলার্ড ১/৩৩।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।